কোন দেশের সার্বভৌমত্বে ‘হস্তক্ষেপে’র অধিকার জাতিসংঘের নেই , মিয়ানমার

মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইয়াং
মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইয়াং

আজবাংলা  জাতিসংঘের আহ্বানে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর সংঘটিত অপরাধের প্রাথমিক তদন্ত শুরু করার পর এই প্রথম মিন অং হ্লাইয়াং এ বিষয়ে মুখ খুললেন। মিয়ানমার সেনাবাহিনী পরিচালিত পত্রিকা দৈনিক ‘মায়াওয়াদি’র বরাত দিয়ে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম মিয়ানমার সেনাপ্রধানের বক্তব্য তুলে ধরেছে। ওই পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, মিয়ানমারের সেনাপ্রধান বলেন, ‘কোনো দেশ, সংগঠন বা গ্রুপের ‘অন্য একটি দেশের সার্বভৌমত্বে হস্তক্ষেপের অধিকার নেই। কেউ অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মধ্যস্থতা করতে এলে তাতে ভুল-বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়।’ জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলছে উল্লেখ করে সে সময় দেশটির এক সরকারি মুখপাত্র বলেছিলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমার স্বাধীন তদন্ত কমিশন নিয়ে কাজ করছে। মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ তোলা হচ্ছে এই কমিশন সেগুলো খণ্ডন করবে। মিয়ানমারের সরকার এরই মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদনকে অস্বীকার করে এটিকে একতরফা বলে অভিযুক্ত করেছে। এ ছাড়াও তারা আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের বিচার-সংক্রান্ত যে সিদ্ধান্ত সেটিকেও অগ্রাহ্য করেছে। জাতিসংঘের তদন্ত দল রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে দেশটির সেনাবাহিনীর নিপীড়ন ও গণহত্যার তথ্যপ্রমাণ খুঁজে পেয়েছে বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।