বিজেপি বদল নয়, বদলা নিতে জানে” দিদিমনি রাজ্যকে নিজের শাড়ির রঙ করতে ব্যস্ত

নিজের ফোন দিয়ে ছবি তুলছেন দিলিপ
নিজের ফোন দিয়ে ছবি তুলছেন রাজ্য সভাপতি দিলিপ ঘোষ

আজ বাংল, উত্তর দিনাজপুরঃ উত্তর দিনাজপুর জেলার হেমতাবাদ এ এক সভা তে এসে রাজ্য সভাপতি দিলিপ ঘোষ কর্মী দের আর এক বার চাঙ্গ থাকতে বলে গেলেন। পাখির চোখের মতোলোকসভা ভোটকে সামনে রেখে কর্মী দের নিয়ে নানা কর্মসূচি করেন ইসলামপুর কান্ড নিয়ে তিনি বলেন ” এই সরকার মানুষের সুরক্ষা দিতে পারে না,ছাত্র ছাত্রী দের গুলি করে,শিক্ষক চেয়েছে বলে গুলি করছে পুলিশ, রাজ্য শিক্ষক,ডাক্তার কিছু নেই, এর পরে তিনি বলেন তৃনমূল নেত্রী তার শাড়ি রঙে সাথে রাজ্যের হাসপাতাল গুলি রঙ করছেন কোন চিকিৎসা হয় না।

রাজ্যের দিদিমণি ভোটের আগে বলেছিলেন বদলা নয়, বদল চায়।কিন্তু আমি বদল জানি না বদল কি বুঝিনা। আমি সরাসরি বদলা নেব। পুলিশ হোক, নেতা হোক,মন্ত্রী হোক, বদলা আমরা নেবই সেই দিন চলে আসছে, পুলিশ আজ দিদির হয়ে কাজ করছে কাল দাদার হয়ে করবে, পুলিশ তখন তৃনমূল দের ধোরবে । আমি যা বলি তাই করি, আর যা করি তাই বলি। জনসভা থেকে সরাসরি তৃনমূল ও পুলিশকে এমন হুঁশিয়ারি দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।
চক্রান্ত করে বিজেপির জেলা সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তীর এক এর পরে এক বাহানা দেখিয়ে ঘুরাচ্ছে পুলিশ। উস্কানিমূলক বক্তব্যকে কার্যত শিলমোহর দিয়ে দিলীপ বাবু বলেন, আমাদের সভাপতি ঠিক কথা বলেছেন, চোর রাতে বাড়ি ঢুকলে গাছে বেধে রেখে দিই, তেমন পুলিশও যদি রাতের অন্ধকারে ঢোকে তাঁদেরও গাছে বেধে রাখার দরকার আছে। কারণ, রাতের বেলায় ঘুম ভাঙিয়ে বিরক্ত করে এমন অধিকার নেই তাঁদের। এদিন দিলীপ বাবু আরো বলেন বলেন, অনেক চোর, গুন্ডা, পুলিশ দেখেছি ওই সব ভয় আমাদের দেখাবেন না। পঞ্চায়েত ভোট পুলিশ দিয়ে লুঠ করে জিতেছেন, ভাবছেন লোকসভাতেও এইভাবে জিতবেন? পারবেন না তখন দাদার পুলিশ থাকবে আর আপনারা ১০০ মিটার দূরে “আজ আপনারা খেলেছেন আমরা দেখেছি, তৈরি থাকুন ১৯ সালে আমরা খেলবো, আপনাদের দেখতে হবে”।