বুধবার রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত ১১২

আজবাংলা   বুধবার বিকেলে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে আরও ১১২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে ১৩৪৪ থেকে বেড়ে রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪৫৬। এখনও পর্যন্ত কোভিড-এর কারণে মৃত্যু হয়েছে ৭২ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৬৫ জন। ২৪ ঘণ্টায় মাত্র একজন করোনা আক্রান্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন৷স্বরাষ্ট্র সচিব আরও জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৭০ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে। এই নিয়ে রাজ্যে ৩০,১৪১ জনের করোনা পরীক্ষা হল।স্বরাষ্ট্রসচিব জানান, এখনও পর্যন্ত রাজ্যের ১০টি সরকারি ও ৫টি বেসরকারি ল্যাবরেটরিতে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। করোনা পরীক্ষার নামে ভুয়ো টেস্ট করার অভিযোগ আসলেই পুলিশ কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছে বলে জানান তিনি। রাজ্য সরকার আরও বেশি সংখ্যায় করোনা পরীক্ষা করাতে চায় বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রসচিব। এদিন রাজ্য সরকারের তরফে দাবি করা হয়েছে, রাজ্যে করোনা চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত পরিকাঠামো রয়েছে৷ করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য বাংলায় ৮০৩৬টি বেড রয়েছে৷ ভেন্টিলেটর রয়েছে ৭১টি৷ কলকাতা সহ গোটা রাজ্যেই লকডাউন যথেষ্ট ভাল ভাবেই মানা হচ্ছে বলে নবান্নে দাবি করেন স্বরাষ্ট্রসচিব৷রাজ্যের করোনা সংক্রান্ত তথ্য নিয়ে রাজ্য-কেন্দ্র সংঘাত ক্রমেই বাড়ছে। বুধবারই রাজ্য সরকার রাজ্যের প্রকৃত করোনা পরিস্থিতি প্রকাশ্যে আনছে না, এই অভিযোগ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখলেন বিজেপির সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা ওই চিঠিতে তিনি দাবি করেন যে, রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে "বড়সড় গরমিল" আছে। আসল করোনা পরিস্থিতির সঙ্গে ওই সব তথ্যের "সুস্পষ্ট ফারাক" রয়েছে বলেও অভিযোগ তাঁর। পোড়খাওয়া ওই বিজেপি নেতা এই অভিযোগও করেন যে রাজ্য সরকার ঘরে বাইরে প্রবল সমালোচনা সত্ত্বেও করোনা ভাইরাসের আসল ছবি আড়াল করার চেষ্টা করছে।