ভোটের আগে রাজ্যে ৩৬৫ জারি হতে পারে, ইঙ্গিত বাবুল সুপ্রিয়র

ভোটের আগে রাজ্যে ৩৬৫ জারি হতে পারে, ইঙ্গিত বাবুল সুপ্রিয়র

আইনশৃঙ্খলা, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। বিজেপি কর্মীদের খুন হয়েছে। এমনটা চলতে থাকলে ভোটের আগে রাজ্যে জারি হতে পারে রাষ্ট্রপতি শাসন। তারই ইঙ্গিত দিল কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির জল্পনা ঘিরে ফের চড়ল রাজনীতির পারদ।

সুজাপুরের বিস্ফোরণ নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে শুক্রবার রাজ্য বিজেপি-র সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘অনেকেই মনে করছেন পশ্চিমবঙ্গে ৩৫৬ ধারা জারি হওয়া উচিত!’’ যার পাল্টা তৃণমূল মুখপাত্র তথা রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু বললেন, ‘‘হিম্মত থাকলে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করে দেখাক!’’ 

সংবাদসংস্থা এএনআই-কে বাবুল বলেছেন, 'দিনের পর দিন বিজেপি কর্মীদের হত্যা করা হচ্ছে। দিদি যদি মনে করেন যে কেন্দ্রে দুর্বল সরকার রয়েছে তাহলে বিরাট বড় ভুল করছেন। বিজেপি-কে কিছু করতে হবে না, এরকম হিংস্র সরকারের জন্য কী দাওয়াই প্রয়োগ করতে হবে তা সংবিধানেই বলা আছে।'

তবে শুধু ৩৫৬ ধারা জারি নয়, বাবুল সুপ্রিয় এ দিন আরও দাবি করেছেন, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে ২০০-র বেশি আসন পাবে বিজেপি। তাঁর অভিযোগ, আশির বেশি কেন্দ্রীয় প্রকল্প রাজ্য সরকার চালু হতে দিচ্ছে না।

বাবুলের বক্তব্য, বৌদ্ধিক, সাংস্কৃতিকভাবেই হোক বা স্বাধীনতা আন্দোলনে, বারবার দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছে বাংলা। এই রাজ্যের মানুষের প্রাপ্য অনেক বেশি। অথচ বর্তমান সরকার বারবার সংবিধান লঙ্ঘন করছে।

কেন্দ্রের সঙ্গে তথ্য শেয়ার করছে না, ন্যাশনাল ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরোকে অপরাধের ডেটাও দিচ্ছে না। আইনশৃঙ্খলা, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা বলে আর কিছু নেই। তৃণমূল ভয় পাচ্ছে তাই রাজ্যজুড়ে হিংসা চলছে। মমতাই এর পিছনে আছেন তাই অশান্তি বন্ধ হচ্ছে না।

আগামী বছরের শুরুতেই রাজ্যে বিধানসভা ভোট। একুশের ভোটে বাংলা দখলে মরিয়া গেরুয়া শিবির। প্রস্তুতিতে এক ইঞ্চিও ফাঁক-ফোকর রাখতে চাইছেন না বিজেপি নেতারা। ইতিমধ্যেই বাংলায় বিজেপির সহকারি পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দলের আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্যকে।

প্রসঙ্গত, দিলীপের আগে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়ও বলেছিলেন, ‘‘গত ২-৩ বছরে ১৩০-এর বেশি বিজেপি কর্মী পশ্চিমবঙ্গে খুন হয়েছেন। যদি এ ভাবেই চলতে থাকে, তবে সংবিধানে ব্যবস্থা রয়েছে। সেইমতো পদক্ষেপ করা হবে।’’ বাবুলের কথার পাল্টা তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘‘বার বার রাষ্ট্রপতি শাসনের কথা বলে আসলে তৃণমূলের কর্মীদের ভয় দেখানোর চেষ্টা হচ্ছে।