ঢাকার গুলশানের জঙ্গি হামলার মামলায় সাতজন জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ড

7 militants

আজবাংলা ঢাকা বাংলাদেশে ২০১৬ সালে ঢাকার অভিজাত এলাকা গুলশানের হোলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার মামলায় সাতজন জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে ঢাকার একটি বিশেষ আদালত। তিন বছর আগে ২০১৬ সালের ১লা জুলাই রাতে ঢাকার গুলশানে অভিজাত রেস্তোরাটিতে জঙ্গিদের হামলায় ১৮ জন বিদেশি নাগরিকসহ ২২ জন নিহত হয়।

নিহতদের মধ্যে নয় জন ইতালির, সাত জন জাপানের, তিন জন বাংলাদেশী, যাদের একজনের দ্বৈত নাগরিকত্ব ছিল এবং এক জন ভারতীয় নাগরিক। এছাড়া দুইজন পুলিশ কর্মকর্তাও নিহত হয়েছিলেন জঙ্গিদের গুলিতে।নৃশংস হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় করা মামলার রায়ে ৮ আসামির মধ্যে ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ১ জনকে খালাস দিয়েছেন আদালত। ঢাকার সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল বুধবার দুপুরে এ রায় ঘোষণা করেন।যাদের মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে তারা হলেন: জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে রাজিব গান্ধী, আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদ ওরফে রাশ, সোহেল মাহফুজ ওরফে হাতকাটা মাহফুজ, হাদিসুর রহমান সাগর, রাকিবুল হাসান রিগ্যান, মামুনুর রশিদ রিপন এবং শরিফুল ইসলাম খালিদ।মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান নামে অভিযুক্ত আরেকজনকে খালাস দিয়েছে আদালত। ২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে এই হামলা মামলার বিচারকাজ শুরু হয়। গত এক বছরে রাষ্ট্রপক্ষ এই হামলা মামলায় ১১৩ জন সাক্ষী হাজির করেছে। তাঁদের মধ্যে ছিলেন নিহত পুলিশের পরিবারের সদস্যরা, হামলা প্রতিহত করতে গিয়ে আহত পুলিশ, হোলি আর্টিজান বেকারির মালিক ও কর্মী, বন্দি হয়ে পড়া অতিথি এবং যেসব বাড়িতে আস্তানা গেড়ে নৃশংস এই হামলার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন, সেসব বাড়ির মালিকেরা। মধ্যপ্রাচ্য-ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট গোষ্ঠির দৃষ্টি আকর্ষণ করা এবং জনমনে ভয় তৈরি করার জন্য ওই হামলা চালানো হয়েছিল বলে আদালত উল্লেখ করেছে।এই রায় ঘোষণোকে কেন্দ্র করে নাশকতার আশংকায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় গোয়েন্দা নজরদারী বাড়ানো হয়েছে।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!