মসজিদে বোমা তৈরির সময় বিস্ফোরণে মৃত্যু ৩০ জঙ্গি

মসজিদে বোমা তৈরির সময় বিস্ফোরণে মৃত্যু ৩০ জঙ্গি

মসজিদে চলছিল বোমা বানানোর প্রশিক্ষণ। কীভাবে মাইন তৈরি করা হবে? হাতে-কলমে সেটাই শেখানো হচ্ছিল। আর তখনই ঘটে যায় বিস্ফোরণ। আফগানিস্তানের (Afghanistan) বালখ প্রদেশের এই ঘটনায় মারা গেল ৩০ তালিবানি জঙ্গি। এমনটাই জানানো হয়েছে আফগান সেনার পক্ষ থেকে। বিস্ফোরণের ঘটনায় আফগান সেনাবাহিনীর ২০৯ শাহিন কোরের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়।

সেখানেই জানানো হয়, গত শনিবার বিস্ফোরণে ৩০ তালিবান জঙ্গি মারা গিয়েছে। তাতে আবার ছয়জন বিদেশিও রয়েছে। এরাই মাইন বিশেষজ্ঞ হিসেবে সেখানে অন্যদের বিস্ফোরক বানানোর প্রশিক্ষণ দিচ্ছিল। জানা গিয়েছে, বালখ প্রদেশের দৌলতাবাদ জেলার কুলতাক গ্রামের একটি মসজিদে ঘটনাটি ঘটেছে। সেখানেই ওই ছয় বিদেশির কাছ থেকে বিস্ফোরক বানানোর কৌশল শিখছিল জঙ্গিরা। তখনই আচমকা বিস্ফোরণ ঘটে। তার তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে ওই ছ'জনের পরিচয়ও জানা যায়নি।

গোটা ঘটনায় ওই এলাকায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।দীর্ঘদিন ধরেই তালিবানের দৌরাত্ম্যে অশান্ত আফগানিস্তান। বছরখানেক ধরে শান্তি আলোচনা চলছে তালিবান ও আফগান সরকারের মধ্যে। মধ্যস্থতায় রয়েছে মার্কিন প্রশাসনও। অথচ তার মধ্যেই নিয়মিত হিংসার ঘটনা ঘটেই চলেছে। এমনকী বাইডেন প্রশাসনও সম্প্রতি তালিবানের বিরুদ্ধে চুক্তি না মানার অভিযোগ তুলেছে।

এই পরিস্থিতিতে সে দেশে একের পর এক হামলা চালিয়ে যাচ্ছে তালিবান। চলতি মাসেই আফগানিস্তানের কুন্দুজ প্রদেশের খান আবাদ এলাকায় নিরাপত্তারক্ষীদের একটি চেকপোস্টে হামলা চালায় জঙ্গিরা। অত্যাধুনিক একে-৪৭ রাইফেল ও রকেট লঞ্চার নিয়ে সরকারি বাহিনীর উপর আচমকা আঘাত হানে জেহাদিরা। ফলে সামলে ওঠার আগেই বেশ কয়েকজন সৈনিকের মৃত্যু হয়। ওই হামলায় সব মিলিয়ে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। গুরুতর জখম হন বেশ কয়েকজন।