ভাবা যায়! এবার হানি ট্র্যাপে ফাঁসিয়ে এক DRDO এর বিজ্ঞানীকে অপহরণ!

ভাবা যায়! এবার হানি ট্র্যাপে ফাঁসিয়ে এক DRDO এর বিজ্ঞানীকে অপহরণ!

আজ বাংলা: ভাবা যায়! এবার এবার হানি ট্র্যাপে ফাঁসিয়ে এক DRDO এর বিজ্ঞানীকে অপহরণ করল কয়েকজন। 

জানা গিয়েছে, শনিবার বিকেলে মাসাজ করানোর নামে বৈজ্ঞানিককে হোটেলে নিয়ে গিয়ে বন্দি বানিয়ে অপহরণ করা হয়। দুষ্কৃতীরা বৈজ্ঞানিকের স্ত্রীর কাছ থেকে ১০ লক্ষ টাকা দাবি করেছে। ঘটনার খবর পাওয়ার পরেই পুলিশে টিম তদন্তে নেমে পড়ে। 


বিকেলে পুলিশ বৈজ্ঞানিককে ছাড়িয়ে এক মহিলা সমেত তিনজন কে গ্রেফতার করে। পুলিশ এই ঘটনায় যুক্ত অন্য অভিযুক্তদেরও তল্লাশি চালাচ্ছে। 

পুলিশের তরফ থেকে জানা যায়, সেক্টর ৭৭ এর বাসিন্দা ডিআরডিও এর জুনিয়ার বৈজ্ঞানিক কিছুদিন আগে ইন্টারনেটে বডি মাসাজ নিয়ে সার্চ করেছিলেন। সেখানে একটি ওয়েবসাইটে ওই বৈজ্ঞানিক একটি নাম্বার পায়। ওই নাম্বারে এক মহিলার সঙ্গে বৈজ্ঞানিকের কথা হয়। ওই মহিলা মাসাজের নামে বৈজ্ঞানিককে হানি ট্র্যাপে ফাঁসিয়ে নেয়।

শনিবার বিকেলে এক যুবককে গাড়ি নিয়ে বৈজ্ঞানিকের সোসাইটিতে পাঠায় ওই মহিলা। বৈজ্ঞানিক মাসাজ করার জন্য যুবকের গাড়িতে করে সেখানে থেকে বেরিয়ে যায়। যুবক ওই বৈজ্ঞানিককে একটি হোটেলে নিয়ে যায়, যেখানে এক মহিলা সমেত তিন থেকে চারজন আগে থেকেই উপস্থিত ছিল। 

বৈজ্ঞানিক সেখানে পৌঁছাতেই অভিযুক্তরা ওনাকে বন্দি বানিয়ে নেয়। কর্মকর্তার এরপর তাঁরা বৈজ্ঞানিকের স্ত্রীকে ফোন করে ১০ লক্ষ টাকার দাবি করে। রবিবার সকালে এই ঘটনার কথা পুলিশের কানে যেতেই চাঞ্চল্য ছড়ায়। 


তড়িঘড়ি পুলিশের কয়েকটি টিম বৈজ্ঞানিকের তল্লাশিতে জুটে যায়। রবিবার বিকেলে পুলিশের টিম বৈজ্ঞানিককে সুরক্ষিত উদ্ধার করে। এক মহিলা সমেত তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।