টুর্নামেন্টকে কেন্দ্র করে গণ্ডগোল, বিবাদ চলল গুলি বর্ষণও

টুর্নামেন্টকে কেন্দ্র করে গণ্ডগোল, বিবাদ চলল গুলি বর্ষণও

আজবাংলা   কাল ছিল ইদ। সেই উপলক্ষ্যে করা হয়েছিল ফুটবল টুর্নামেন্ট। ওখানকার স্থানীয়রা খেলা দেখতে জড় হয়েছিল সামাজিক দূরত্বকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে। বেশ ভাল রকম চলছিল খেলা। কিনতু আচমকাই খেলা চলাকালীনই দুই দলের মধ্যে ঝামেলা ও মারামারি শুরু হয়। এরইমাঝে খেলাকে কেন্দ্র করে চলল গুলির বর্ষণ। 

গুলি চলার দরুন মুহূর্তের মধ্যে গরম হয়ে ওঠে ওই এলাকা। এরপরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, গ্রামের ক্লাবের মাঠের মধ্যে  আয়োজন করা হয়েছিল ফুটবল টুর্নামেন্ট। টুর্নামেন্টের জন্য এই ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যেও ভিড় হয়েছিল বেশ ভালই। খেলাও চলছিল জোরকদমে।

কিনতু গণ্ডগোলের সুত্রপাত হয় রেফারির একটি সিদ্ধান্তের কারণে। ছোটখাটো কথা থেকে বেঁধে যায় বচসা। ঠিক সেই সময় এক যুবক আচমকা মাঠে ঢুকে গুলি চালাতে শুরু করে। ব্যাস, শুরু হয়ে যায় হুরহুরি। দর্শকরা নিজের প্রানের তাগিদে ছোটাছুটি শুরু দেয়। সবমিলিয়ে চরম বিশৃঙ্খল সৃষ্টি হয়। খবর পাওয়া মাত্র ছুটে যান মিনাখাঁ থানার পুলিশ। এরপর আবার মূল  অভিযুক্তের গ্রেপ্তারির দাবিতে শুরু হয় বিক্ষোভে।

এত কিছুর কিছু প্রশ্ন থেকেই যায়। যেমন, প্রশাসনের অনুমতি নেওয়া হয়েছিল কি? করোনার এই সময়ে লকডাউনের মধ্যে ফুটবল টুর্নামেন্ট কিভাবে গঠন হয়? বসিরহাট জেলা পুলিশের সুপার কঙ্করপ্রসাদ বারুই জানান, ‘‘মিনাখাঁয় খেলার অনুমতি আমাদের কাছে চাওয়া হয়নি। খতিয়ে দেখা ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’