চাণক্য নীতি মতে এই বিষয়গুলিতে পুরুষের চেয়ে অনেক বেশী এগিয়ে থাকেন মহিলারা

চাণক্য নীতি মতে এই বিষয়গুলিতে পুরুষের চেয়ে অনেক বেশী এগিয়ে থাকেন মহিলারা

চাণক্য পন্ডিত ভারতবর্ষের ইতিহাসে এক অনন্য অসাধারণ ব্যক্তিত্ব। চাণক্য নীতি chanakya neeti বা বানীর জন্য তিনি আমাদের কাছে অবিস্মরণীয়। খ্রিস্টপূর্ব 370 থেকে 283 অব্দ পর্যন্ত ছিল তার জীবনকাল। একাধারে তিনি ছিলেন দার্শনিক, পন্ডিত, রাজনীতিবিদ ও কূটনীতিবিদ। এত বছর পুরনো কালেও চানক্য তার চানক্য নীতি কথা বানীর মধ্যে দিয়ে যে ভূমিকা আমাদের সমাজের জন্য রেখে গেছেন তা আজও আমাদের কাছে অনবদ্য।

চাণক্যের আরেক নাম ছিল কৌটিল্য । কৌটিল্যের অর্থশাস্ত্র ভারতবর্ষে এখনো পর্যন্ত অদ্বিতীয় একটি গ্রন্থ।চাণক্যের বাণী আজও আমাদের সামাজিক, মানসিক, রাজনৈতিক, রাষ্ট্রীয় জীবন সবদিক থেকেই আমাদের কে সুন্দর এবং সুপরিকল্পিত ভাবে বাঁচতে সাহায্য করে। নিচে চাণক্য নীতি র কিছু মূল্যবান বাণী উল্লেখ করা হলো। 

আচার্য চাণক্য জানিয়েছেন যে মহিলারা পুরুষদের তুলনায় অনেক বেশী খিদে অনুভব করেন কারন তাদের শরীরে অতিরিক্ত ক্যালরি প্রয়োজন হয়ে থাকে।  আচার্য চাণক্য বলেছেন যে মহিলারা পুরুষদের চেয়ে জ্ঞানী। কারণ মহিলারা সমস্ত কাজ বুদ্ধি দিয়ে বিচার করে তবেই করেন। মহিলারা চতুরতার সাথে এবং বুদ্ধির মিশ্রনে জীবনের প্রতিটি অসুবিধা সমাধান করতে সক্ষম হন।  

পাশাপাশি , পুরুষদের তুলনায় মহিলারা বহুগুণ বেশি সাহসী হন। চাণক্যের মতে, মহিলারা প্রতিটি কঠিন মুহুর্তের মুখোমুখি হন। এজন্য মহিলারা পুরুষদের চেয়ে বহুগুন সাহসের অধিকারিণী হন। আবার যৌণমিলনের ক্ষেত্রে পুরুষদের বলে বলে হারাতে পারেন মহিলারা চাণক্য বলেছেন যে যৌন মিলনে পুরুষদের চেয়ে ৮ গুণ বেশি মহিলাকে কাজ করতে দেখা যায়।

ভারতীয় সাহিত্য ও লোকগাঁথায় চাণক্য এক কিংবদন্তি স্বরূপ। তিনি তার বিশাল জ্ঞান লিপিবদ্ধ করেছিলেন অর্থশাস্ত্র ও চাণক্য নীতি নামের দুটি গ্রন্থে। বস্তুত এই দুই গ্রন্থে চাণক্যের দেওয়া উপদেশাবলি যদি কেউ অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলতে পারে তবে নাম, যশ, খ্যাতি ও সম্পদের চূড়ায় ওঠা সম্ভব।