হাওড়া, মুর্শিদাবাদ, নদিয়ার পর এবার অশান্ত হয়ে উঠল উত্তর ২৪ পরগনা

হাওড়া, মুর্শিদাবাদ, নদিয়ার পর এবার অশান্ত হয়ে উঠল উত্তর ২৪ পরগনা

হাওড়া, মুর্শিদাবাদ, নদিয়ার পর এবার অশান্ত হয়ে উঠল উত্তর ২৪ পরগনা (North 24 Parganas)। সোমবার সকাল থেকেই বিক্ষিপ্ত অশান্তি শুরু হয়েছে হাসনাবাদ, বারাসত এলাকা। সাতসকালেই বারাসতের (Barasat) কাজিপাড়ায় রেল অবরোধ করে বিক্ষুব্ধরা। একেবারে রেললাইনে নেমে অবরোধ-বিক্ষোভ দেখায় তারা।

যার জেরে শিয়ালদা-হাসনাবাদ (Sealdah-Hasnabad) রেল পরিষেবা ব্যাহত হয়েছে। সাতসকালেই ট্রেন পরিষেবা বিঘ্নিত হওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন অফিসযাত্রীরা। আবার দেগঙ্গা (Deganga) এলাকাও অশান্ত হয়ে উঠেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।  অন্যদিকে,ধীরে-ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে হাওড়া (Howrah)।

এদিন সকাল থেকেই হাওড়ার ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করা হয়। তবে ডোমজুড়ের অঙ্কুরহাটি মোড়, উলুবেড়িয়া, পাঁচলা, ধূলোগড় সহ উত্তেজনাপ্রবণ এলাকাগুলিতে জারি রয়েছে ১৪৪ ধারা। আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত এই এলাকাগুলিতে ১৪৪ ধারা জারি থাকবে। 

শহরে কোনওরকম অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা হলে নেওয়া হবে উপযুক্ত পদক্ষেপ। কলকাতা পুলিশের সাম্প্রতিকতম বার্তায় সেই ইঙ্গিত মিলল এবার। রবিবার Kolkata Police এর Facebook Page ও Twitter Handle থেকে একটি বার্তা দেওয়া হয়েছে। যেখানে লেখা হয়েছে, "ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামের মতো সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এবং হোয়াটসঅ্যাপের মতো মেসেজিং সার্ভিসের মাধ্যমে নানা ধরনের ভুল তথ্য এবং গুজব ছড়ানো হচ্ছে।

আমাদের অনুরোধ, যাচাই না করে কোনওরকম ভুল বা মিথ্যে তথ্য পোস্ট বা শেয়ার করবেন না। এই ধরনের পোস্টে কমেন্টও করবেন না।" ওই পোস্টে আরও লেখা হয়, "এতে সামাজিক সংহতি বিঘ্নিত হয়। পাশাপাশি, ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুসারে এতে আইনভঙ্গের সম্ভাবনা থাকে। ফলত আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়।" কেউ বিভ্রান্তিকর গুজব ছড়ালে লালবাজারের কন্ট্রোল রুমে (২২১৪-১৩১০/ ৩০২৪/ ৩২৩০) অভিযোগ জানানোর পরামর্শও দেওয়া হয়েছে এদিন। +৯১৯৪৩২৬২৪৩৬৫ নম্বরে WhatsApp করেও ওই অভিযোগ জানানো যেতে পারে।