আলিপুরদুয়ার জেলা | Alipurduar

আলিপুরদুয়ার জেলা | Alipurduar

পশ্চিমবঙ্গের ডুয়ার্স অঞ্চলের প্রধান অংশটি এখন নতুন জেলা আলিপুরদুয়ার। এই অঞ্চলের সৌন্দর্য কেবল তার চা বাগানের মধ্যেই নয় ঘন জঙ্গলেও দৃশ্যমান। বাঘ, গণ্ডার এবং হাতির মতো দুর্লভ বিপদগ্রস্ত এক প্রজাতির প্রাণী ডুয়ার্সের বনে তাদের আবাস তৈরি করে। অন্যান্য প্রাণীদের মধ্যে হরিণ, বাইসন, পাখি এবং বিভিন্ন ধরণের সরীসৃপ অন্তর্ভুক্ত। কালজানি নদীর উত্তর তীরে অবস্থিত, আলিপুরদুয়ার হল ভুটান এবং ভারতের উত্তর-পূর্ব রাজ্যের প্রবেশদ্বার।

পুম্পসে আলিপুরদুয়ার ছোট সিনচুলা এলাকার সর্বোচ্চ শিখর। শিখরটি বক্সা পাহাড় এবং ভুটান উপত্যকার দুর্ভেদ্য বন কভারের সুন্দর দৃশ্য উপস্থাপন করে। দক্ষিণ খাইবাড়ী টাইগার রেসকিউ সেন্টার, একটি অনন্য প্রচেষ্টা যা পুরো উত্তর-পূর্ব ভারতের তুলনায় অতুলনীয়, সম্প্রতি আলিপুরদুয়ারে উঠে এসেছে।  আলিপুরদুয়ার জেলার বক্সা পাহাড় অঞ্চলে বক্সা জাতীয় উদ্যান অবস্থিত।

এই উদ্যানের আয়তন ৭৬০ বর্গকিলোমিটার। এখানে একটি ব্যাঘ্র সংরক্ষণ কেন্দ্র রয়েছে। এই উদ্যানে বাঘ, সিভেট ও রেড জঙ্গল ফাউল দেখা যায়। উদ্যানের মধ্যে বক্সা দুর্গ নামে একটি দুর্গ আছে। ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের সময় নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে এই দুর্গে কিছুদিন বন্দী করে রাখা হয়েছিল। এছাড়া উদ্যানের মধ্যে একটি শিব মন্দিরও আছে। এটিকে স্থানীয় মানুষেরা পবিত্র মনে করে।  পূর্ব হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের আয়তন ১৪১ বর্গকিলোমিটার।

এই উদ্যানটি তোর্সা নদীর তীরে অবস্থিত একটি নদীকেন্দ্রিক বনাঞ্চলময় সুবিস্তীর্ণ তৃণভূমি। এখানকার জীবজন্তুর মধ্যে অবলুপ্তপ্রায় একশৃঙ্গ গণ্ডার বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। জলদাপাড়ায় পর্যটকদের জন্য এলিফ্যান্ড সাফারির মাধ্যমে জীবজন্তু পরিদর্শনের ব্যবস্থা আছে। এখানকার টোটোপাড়া একটি নৃতাত্ত্বিক পর্যটনস্থল। এটি বিশ্বে টোটো উপজাতির একমাত্র আবাসস্থল।  ২০১৪ সালে আলিপুরদুয়ারকে পশ্চিমবঙ্গের ২০তম জেলা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এর ফলে সরকারি কাজ ও পরিষেবা মানুষের কাছে আরও দ্রুততার সঙ্গে পৌঁছে যাচ্ছে।

জেলা, ব্লক ও গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসবাসকারী পরিবারগুলির উন্নয়নে একগুচ্ছ প্রকল্প চালু করেছে সরকার। পশ্চিমবঙ্গের সংসদীয় ক্ষেত্রগুলির সীমানা পুনর্নিধারণের বিষয়ে সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশন আদেশানুসারে কুমারগ্রাম ব্লক এবং ভাটিবাড়ি, কোহিনুর, পরোকাটা, মহাকালগুড়ি, শামুকতলা, তুরতুরি ও টাটপাড়া-১ – আলিপুরদুয়ার-২ ব্লকের এই সাতটি গ্রামপঞ্চায়েত নিয়ে কুমারগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্র গঠিত হয়েছে। আলিপুরদুয়ার-২ ব্লকের মাঝেরডাবরি গ্রাম পঞ্চায়েত ও কালচিনি ব্লক নিয়ে গঠিত হয়েছে কালচিনি বিধানসভা কেন্দ্র।

আলিপুরদুয়ার পৌরসভা, আলিপুরদুয়ার রেলওয়ে জাংশান সেন্সাস টাউন, আলিপুরদুয়ার-২ ব্লকের চপোরের পার-১, চপোরের পার-২, টাটপাড়া-২ গ্রাম পঞ্চায়েত এবং আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের বঞ্চুকামারি, পরোপার, শালকুমার-১, বিবেকানন্দ-১, চকোয়াখেতি, পটলাখাওয়া, শালকুমার-২, বিবেকানন্দ-২, মথুরা, ও তপসিখাটা – এই দশটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত হয়েছে আলিপুরদুয়ার বিধানসভা কেন্দ্র।

আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের পূর্ব কাঁঠালবাড়ি ও ফালাকাটা ব্লক নিয়ে ফালাকাটা বিধানসভা কেন্দ্র গঠিত হয়েছে। মাদারিহাট ব্লক অন্তর্ভুক্ত হয়েছে মাদারিহাট বিধানসভা কেন্দ্রের। কুমারগ্রাম, কালচিনি ও মাদারিহাট বিধানসভা কেন্দ্রগুলি তফসিলি উপজাতি প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষিত। ফালাকাটা বিধানসভা কেন্দ্রটি সংরক্ষিত তফসিলি জাতি প্রার্থীদের জন্য। এই পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্রই আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত হয়েছে। এই লোকসভা কেন্দ্রটি তফসিলি উপজাতি প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষিত।

  আলিপুরদুয়ার জেলা হল  জলপাইগুড়ি বিভাগের পাঁচটি জেলার অন্যতম। 

২০১৪ সালের ২৫ জুন এই জেলা গঠিত হয়।  আলিপুরদুয়ারপৌরসভা এবং মাদারিহাট–বীরপাড়া, আলিপুরদুয়ার–১, আলিপুরদুয়ার–২, ফালাকাটা, কালচিনি ও কুমারগ্রাম–এই ছয়টি ব্লক নিয়ে আলিপুরদুয়ার জেলা গঠিত। এই জেলায় ৬৬টি গ্রাম পঞ্চায়েত ও ৯টি সেন্সাস টাউন আছে। জেলার সদর আলিপুরদুয়ার। 

আলিপুরদুয়ার জেলার থানা 

আলিপুরদুয়ার | ফালাকাটাকুমারগ্রামসামুকতলাকালচিনিজাইগন মাদারিহাট | বীরপাড়াআলিপুরদুয়ার পুলিশ হেডকোয়ার্টারCI অফিস কালচিনি আলিপুরদুয়ার মহিলা থানাসাইবার ক্রাইম থানা  

মাদারিহাট-বীরপাড়া ব্লক   মাদারিহাট-বীরপাড়া ব্লকের গ্রামীণ অঞ্চল দশটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: বান্দাপানি, হাঁতাপাড়া, মাদারিহাট, টোটোপাড়া বল্লালগুড়ি, বীরপাড়া-১, খয়ারবাড়ি, রঙ্গালিবাজনা, বীরপাড়া-২, লঙ্কাপাড়া , শিশুঝুমরা। এই ব্লকে কোনো নগরাঞ্চল নেই। ব্লকটি মাদারিহাট ও বীরপাড়া থানার অন্তর্গত। ব্লকের সদর মাদারিহাট। 

আলিপুরদুয়ার-১ ব্লক  salkurhat kolabaria আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের গ্রামীণ অঞ্চল এগারোটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: বঞ্চুকামারি, পরোপার, শালকুমার-১, বিবেকানন্দ-১, চকোয়াখেতি, পটলাখাওয়া, শালকুমার-২, বিবেকানন্দ-২, মথুরা, পূর্ব কাঁঠালবাড়ি  তপসিখাটা।  এই ব্লকের নগরাঞ্চল চারটি সেন্সাস টাউন নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: পশ্চিম জিতপুর, ছেচকাটা, আলিপুরদুয়ার রেলওয়ে জাংশান , ভোলার ডাবরি।  ব্লকটি আলিপুরদুয়ার থানার অন্তর্গত।  ব্লকের সদর পাঁচকালগুড়ি। 

আলিপুরদুয়ার-২ ব্লক   আলিপুরদুয়ার-২ ব্লকের গ্রামীণ অঞ্চল এগারোটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: চপোরের পার-১, মহাকালগুড়ি, শামুকতলা, তুরতুরি, চপোরের পার-২, মাঝের ডাবরি, টাটপাড়া-১, ভাটিবড়ি, কোহিনুর, পরোকাটা  , টাটপাড়া-২। এই ব্লকের নগরাঞ্চল শোভাগঞ্জ সেন্সাস টাউনটি নিয়ে গঠিত। ব্লকটি আলিপুরদুয়ার থানার অন্তর্গত। ব্লকের সদর যশোডাঙা।

ফালাকাটা ব্লক   ফালাকাটা ব্লকের গ্রামীণ অঞ্চল বারোটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: দলগাঁ, ধনীরামপুর-২, গুয়াবারনগর, ময়রাডাঙা, দেওগাঁ, ফালাকাটা-১, জাতেশ্বর-১, পরঙ্গেরপার, ধনীরামপুর-১, ফালাকাটা-২, জাতেশ্বর-২ , শালকুমার।  এই ব্লকের নগরাঞ্চল ফালাকাটা সেন্সাস টাউনটি নিয়ে গঠিত।  ব্লকটি ফালাকাটা থানার অন্তর্গত। ব্লকের সদর ফালাকাটা। 

কালচিনি ব্লক   কালচিনি ব্লকের গ্রামীণ অঞ্চল এগারোটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: চুয়াপাড়া, জয়গাঁ-১, লাটাবাড়ি, রাজাভাতখাওয়া, দলসিংপাড়া, জয়গাঁ-২, মালাঙ্গি, সাতালি, গাড়োপাড়া, কালচিনি, মেন্দাবাড়ি।এই ব্লকের নগরাঞ্চল দুটি সেন্সাস টাউন নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: জয়গাঁউত্তর লাটাবাড়ি। ব্লকটি জয়গাঁকালচিনি থানার অন্তর্গত। ব্লকের সদর হ্যামিলটনগঞ্জ

কুমারগ্রাম ব্লক   কুমারগ্রাম ব্লকের গ্রামীণ অঞ্চল এগারোটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: চেঙ্গামারি, খোয়ারডাঙা-১, নিউল্যান্ড কুমারগ্রাম সঙ্কোশ, কামাখ্যাগুড়ি-১, খোয়ারডাঙা-২, ভালকা বারাবিসা-১, কামাখ্যাগুড়ি-২, কুমারগ্রাম, রায়ডাক , ভালকা বারাবিসা-২।  এই ব্লকের নগরাঞ্চল উত্তর কামাখ্যাগুড়ি সেন্সাস টাউনটি নিয়ে গঠিত। ব্লকটি কুমারগ্রাম থানার অন্তর্গত। ব্লকের সদর কুমারগ্রাম

আলিপুরদুয়ার  লোকসভা আলিপুরদুয়ার

আলিপুরদুয়ার বিধানসভা  কুমারগ্রাম, কালচিনি, আলিপুরদুয়ার, ফালাকাটা, মাদারিহাট 

 

 

[ আরও পড়ুন ঝাড়গ্রাম জেলা ]