দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় মৃত্যুযোগ নিয়ে জ্যোতিষ শাস্ত্রীয় ব্যাখ্যা

দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় মৃত্যুযোগ নিয়ে জ্যোতিষ শাস্ত্রীয় ব্যাখ্যা

আজবাংলা    যাকে রক্ষা করেন তাকে প্রাণে মারবার ক্ষমতা কারও নেই। এই ছোট্ট বাক্যটি প্রায়ই শোনা যায়। সত্যিই কি তাই? এই যে বিশাল পৃথিবীর চার দিকে অহরহ কত দুর্ঘটনা ঘটে চলেছে। অনেক দুর্ঘটনা আমাদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়। সংবাদপত্র বা টিভির পর্দায় প্রতিনিয়ত তার প্রমান পাচ্ছি, এর সবটাতেই কি কেবলমাত্র বিধাতারই হাত? 

একটি প্রশ্ন আমাদের মাঝেমধ্যে এসেই যায়- সংবাদপত্রে বা টিভিতে প্রায়ই দেখা যায় বড়বড় ভূমিকম্প, মহামারী, বন্যা বা বড়বড় দুর্ঘটনা যেমন ট্রেন বা প্লেন দুর্ঘটনার সংবাদ। এই দুর্ঘটনাগুলিতে দেখা যায় একই সময়ে একই স্থানে বহু লোকের মৃত্যু হয়েছে, আবার অদ্ভুত ভাবে অনেকেই প্রাণে বেঁচে গেছেন। এর পিছনে কি কোনও জ্যোতিষীয় নিয়ম কাজ করছে? উত্তরটা হল- হ্যাঁ, করছে।

বিশ্বের প্রত্যেকটি ঘটনা জ্যোতিষ এবং গ্রহ-নক্ষত্রের গতির দ্বারা স্পন্দিত হয়।

১। বিশ্বের প্রত্যেকটি ভূ-ভাগ আলাদা আলাদা গ্রহের নিয়ন্ত্রণে আছে। দুর্ঘটনার সময় ওই ক্ষেত্রের স্বামীগ্রহ কমজোর হয় অথবা অনিষ্ট প্রভাবে থাকে।

২। দুর্ঘটনাগ্রস্ত স্থানের নামের রাশিও এক্ষেত্রে কাজ করে। কোনও দেশের জন্মলগ্ন, রাশি, ওই সময় ওই দেশের রাজা বা প্রধানমন্ত্রীর রাশি, তাঁর উপর চলতে থাকা গ্রহদের মহাদশা-অন্তদশা, গোচর ইত্যাদির প্রভাবও দুর্ঘটনার উপর পড়ে। যেমন- একই পরিবারে বসবাসকারী মাতা-পিতা, ভাই-বোনের স্বাস্থ্য, শিক্ষা, আর্থিক স্থিতি ইত্যাদি বিষয় পরস্পরের অনন্য প্রভাব পড়ে।

একই দুর্ঘটনায় মৃত ব্যক্তিদের জন্মপত্রিকায় নিম্নলিখিত যোগগুলির কোনও না কোনও যোগ অবশ্যই থাকবে:

১। লগ্ন বা লগ্নাধিপতি পাপ যুক্ত হবে, অথবা ত্রিকোণ স্থানে হবে, অথবা পাপকর্তরী যোগ (পাপ গ্রহ দ্বারা বেষ্টিত) সৃষ্টি হবে।

২। বালরিষ্ট, অল্পায়ু, চোট, দুর্ঘটনা, জলে ডোবার যোগ, মঙ্গল শনির প্রতিযোগ কোষ্ঠীতে অবশ্যই বিদ্যমান হবে।

৩। ষষ্ঠ ভাব মজবুত হবে, ষষ্ঠ ভাব অধিপতি স্থানে থাকবে এবং পাপদ্বারা প্রভাবিত হবে।

৪। অষ্টাধিপতি অষ্টম ভাব এবং আয়ুস্থান ও অধিপতি ক্ষীণ হবে, অস্তগত হবে, অথবা পাপদ্বারা প্রভাবিত হবে।

৫। মারকেশ গ্রহের মহাদশা-অন্তদশা চলতে থাকবে।

৬। এই সকল কারণ-ছাড়া সকল মৃত্যুপথযাত্রীর গোচর খারাপ হবে।

৭। দুর্ঘটনা সম্পর্কিত মৃত্যুযোগ হলে, অর্থাৎ কোনও জাতকের অষ্টম ভাবের অধিপতির সাথে তিন অথবা তার অধিক গ্রহ একই রাশিতে থাকলে ওই ব্যক্তি অন্য ব্যক্তিদের সাথে একই সঙ্গে মারা যাবে।