মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হিন্দুবিরোধী বললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগৎপ্রকাশ নড্ডা

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হিন্দুবিরোধী বললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগৎপ্রকাশ নড্ডা

আজবাংলা    রাজ্য বিজেপির নবগঠিত কর্মসমিতির বৈঠক এ দিন বসেছিল সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ সংলগ্ন মাহেশ্বরী সদনে। তবে সামাজিক দূরত্ব সংক্রান্ত বিধিনিষেধের কথা মাথায় রেখে সেখানে বেশি ভিড় জমতে দেওয়া হয়নি। রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ, পর্যবেক্ষক ও সহকারী পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং অরবিন্দ মেনন, রাষ্ট্রীয় কার্যকারিণীর সদস্য মুকুল রায়,

কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিংহরা মাহেশ্বরী সদনেই ছিলেন। কিন্তু অন্য অনেককেই বৈঠকের ভার্চুয়াল লিঙ্ক পাঠিয়ে ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দিতে বলা হয়েছিল। বিজেপি সভাপতি নড্ডাও দিল্লি থেকে ভার্চুয়াল মাধ্যমেই বৈঠকে শামিল হন। তবে তাঁর ভার্চুয়াল ভাষণে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের দিকে আক্রমণের তীব্রতা ছিল ঝাঁঝালো।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনীতিকে বৃহস্পতিবার সরাসরি ‘হিন্দু বিরোধী’ রাজনীতি বলে আখ্যা দিলেন নড্ডা। আরও একগুচ্ছ ইস্যুতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানিয়ে ২০২১-এ তৃণমূলের সরকারকে ‘উপড়ে’ ফেলার ডাক দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগৎপ্রকাশ নড্ডা ।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ এ দিন খুব জোর গলায় তুলেছেন অমিত শাহের উত্তরসূরি। ৫ অগস্ট অর্থাৎ অযোধ্যায় রামমন্দিরের পুনর্নির্মাণের শিলান্যাসের দিনে পশ্চিমবঙ্গে যে লকডাউন বলবৎ করা হয়েছিল, সে কথা এ দিন মনে করিয়ে দিয়েছেন নড্ডা। তার কয়েক দিন আগেই অর্থাৎ ৩১ জুলাই বকরি ইদ ছিল বলে লকডাউন তুলে নেওয়া হয়েছিল— এমনও বলেন তিনি।

তার পরেই সুর তুঙ্গে তুলে তিনি বলেন, ‘‘এই ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতি, এই তোষণের রাজনীতি এবং এই হিন্দুবিরোধী মানসিকতা তৈরি করার রাজনীতিই হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনীতি।’’বিজেপি সভাপতির এই ভাষণের পরে চুপ করে বসে থাকেনি তৃণমূলও। দলের মহাসচিব তথা রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে নড্ডাকে আক্রমণ করেছেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ‘হিন্দু-বিরোধী’ রাজনীতি করেন বলে যে মন্তব্য নড্ডা করেছেন, তার জবাবে পার্থ বলেন, ‘‘এঁদের এ থেকে জেড পর্যন্ত সব নেতা একই ধরনের কথা বলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে রাজনীতিটা করেন, তা সবাইকে নিয়ে এবং বাংলার যে সংস্কৃতি, ঐতিহ্য, গণতান্ত্রিক অধিকার, তাকে সুরক্ষিত করার জন্য তিনি লড়াই করেছেন, সংগ্রাম করেছেন।’’ পার্থর কথায়, ‘‘আমরা মানুষের জন্য রাজনীতি করি।