মালদায় সরকারী আধিকারিককে মারধরের অভিযোগে গ্রেফতার বিজেপি নেতা

মালদায় সরকারী আধিকারিককে মারধরের অভিযোগে গ্রেফতার বিজেপি নেতা

মালদা:  মানিকচক পঞ্চায়েত সমিতির বিজেপির বিরোধী দলনেত্রী রেনু মন্ডলের  স্বামী তথা বিজেপি নেতা বরুন মন্ডলের বিরুদ্ধে সরকারী আধিকারিককে মারধরের অভিযোগ। প্রশাসন সূত্রে জানা যায় রেনু মন্ডল প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা একটি ঘর পাই ।  এই ঘর নির্মাণ করার জন্য প্রথম কিস্তি ৬০ হাজার  টাকা পেয়েছিল ।

এরপর দ্বিতীয় কিস্তির জন্য রেনু মন্ডল এর বাড়িতে তদন্ত করতে যায় ব্লকের আধিকারিক প্রসেনজিৎ সরকার ও ব্লক কর্মী পলাশ কর্মকার বৃহস্পতিবার বিকালে মানিকচক ব্লকের মানিকচক গ্রাম ঞ্চায়েত এলাকার জোতপাট্টা গ্রামে রেনু মন্ডল এর বাড়িতে।   সরকারি সূত্রে আরো জানা যায় রেনু মন্ডল প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর নির্মাণ সরকারী নিয়ম মেনে করেনি ।

 তারপরেও সরকারি আধিকারিক কে জোর করে তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ করার চাপ দিচ্ছিল ।  সেই সময় রেনু মন্ডল এর স্বামী বরুন মন্ডল মদ্য অবস্থায় সরকারি আধিকারিক প্রসেনজিৎ সরকার ও পলাশ কর্মকার এর উর বাস ও লাঠি নিয়ে চড়াও হয়।   ঘটনাস্থলে বেধড়ক মারধর করা হয় প্রসেনজিৎ সরকার কে সেই সময় সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে।   ঘটনার খবর পেয়ে মানিকচক ব্লক থেকে জয়েন্ট বিডিও রমেশ চন্দ্র মন্ডল এবং মানিকচক থানার পুলিশ পৌছায়।

 অভিযোগ রমেশ চন্দ্র মন্ডল কে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় এবং তাকে মারধর করার চেষ্টা করা হয় রেনু মন্ডল এর পরিবারের তরফ থেকে এরপর কোনভাবে পুলিশ সেখান থেকে আহত প্রসেনজিৎ সরকার ও সরকারি আধিকারিকদের কে উদ্ধার করে হাসাতালে চিকিৎসার জন্য  নিয়ে আসে।   ঘটনায় ব্লকের তরফ থেকে লিখিত অভিযোগ করলে বরুন মন্ডল কে গ্রেফতার করে মানিকচক থানার পুলিশ।

পাল্টা অভিযোগ করে রেনু মন্ডল  জানায় সরকারি আধিকারিক ঘরের কিস্তি দেওয়ার নাম করে ১০ হাজার টাকা কাটমানি চেয়েছিল ।  তা আমি দিতে রাজি না হওয়ায় আমার স্বামীর সঙ্গে বচসা হয় এবং স্বামী রাগের মাথায় মেরে দেয়।   এইভাবে কাটমানি আমরা   প্রতিবাদ জানায় ।   আমরাও লিখিত অভিযোগ করতে চলেছি সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে। পাশাপাশি তিনি আরো বলেন জয়েন্ট বিডিও রমেশ চন্দ্র মন্ডল  তার বাড়িতে গিয়ে তার স্বামী বরুন মন্ডলকে  মারধর করে।