ছাদ থেকে পড়ে মৃত্যু বিজেপি নেতার ছেলের

ছাদ থেকে পড়ে মৃত্যু বিজেপি নেতার ছেলের

হুগলি:     আচমকাই বিকট শব্দ শুনতে পেয়ে ছুটে এসেছিলেন প্রতিবেশীরা। শব্দটা কোথা থেকে আসল, সেটা বুঝতে কিছুটা সময় লেগেছিল, পরে রাস্তার ওপর পড়ে থাকা চাপ চাপ রক্ত দেখে গায়ে কাঁটা দিয়ে ওঠে তাঁদের।

উপুড় হয়ে পড়ে রয়েছে পাড়ার জলজ্যান্ত ছেলেটা! মুখ দিয়ে রক্ত বেরচ্ছে, মাথার একাংশ থেঁতলে গিয়েছে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় বটে তবে শেষ রক্ষা হয়নি। আবাসনের ছাদ থেকে পড়ে গিয়ে অস্বাভাবিক মৃত্যু হল বিজেপি নেতার ছেলের। মর্মান্তিক ঘটনা হুগলির কৃষ্ণপুরে।

বছর একুশের সৌরিশ দাসের বাবা সোমনাথ দাস এলাকার বিজেপি নেতা। এদিন ঘটনার সময়ে তিনি বাড়ি ছিলেন না। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সৌরিশ এদিন বিকালে আবাসনের ছাদে গিয়েছিলেন। মাঝেমধ্যেই তিনি ছাদে যান বলে জানা গিয়েছে।

তবে এদিন কীভাবে তিনি ছাদ থেকে পড়ে গেলেন, তা বুঝতে পারছেন না কেউ। আবাসনের ছাদের পাঁচিল ছোট, কোনওভাবে টাল সামলাতে না পেরে পড়ে যেতে পারেন বলে মনে করছেন অনেকে। আহত সৌরিশকে উদ্ধার করে প্রথমে চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে কলকাতার আরজিকর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কলকাতায় নিয়ে আসার পথে চুঁচুড়া খড়ুয়াবাজারের কাছে মৃত্যু হয় তাঁর। ফের দেহ নিয়ে যাওয়া হয় চুঁচুড়া ইমামবাড়া জেলা হাসপাতালে।

খবর পাওয়ার পর সৌরিশের বাড়িতে যান জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। সৌরিশ কীভাবে পড়ে গেলেন, সৌরিশের এই মৃত্যুর পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হভচ্ছে।

মেধাবী ছাত্র ছিলেন সৌরিশ। মাধ্যমিকে রাজ্যের মধ্যে ভালো ফল করেছিলেন। তারকেশ্বর কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র সৌরিশ ছিলেন অত্যন্ত মিশুকে, চনমনে স্বভাবের। তাঁর এই মর্মান্তিক পরিণতিতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।