ত্বক ও চুলের যত্নে নারকেলের দুধ

ত্বক ও চুলের যত্নে নারকেলের দুধ

কোকোনাট মিল্ক বা নারকেলের দুধে রয়েছে হাজার গুণ। এর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন সি, ই, বি১, বি৩, বি৫ এবং বি৬। এছাড়াও রয়েছে আয়রন, সেলেনিয়াম, সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ফসফরাসের মতো গুরুত্বপূর্ণ খনিজ উপাদান। অসংখ্য উপকারি ভিটামিন এবং মিনারেলস থাকার ফলে চুল এবং ত্বকের পরিচর্যায় নানা ভাবে কাজে লাগে নারকেলের দুধ।

নারকেলের দুধের নানারকম গুণ থাকলেও এটি সবচেয়ে বেশি পরিচিত ত্বকের তাৎক্ষণিক উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির জন্য। কাজেই ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে পারে, এমন পণ্যই এখন ব্যবহার করা দরকার। যাতে শীতের শুষ্কতার কবলে পড়তে না হয়। এ ক্ষেত্রে সব ধরনের ত্বকের জন্যই উপকারী হবে, এমন পণ্য যার মূল উপাদান নারকেলের দুধ। তার পরামর্শ হলো, সব আবহাওয়াতেই ত্বক পরিষ্কার-এক্সফলিয়েট ও আর্দ্রতা ঠিক রাখার জন্য ন্যাচারাল পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে। দেখে নিন নারকেলের দুধের উপকারি গুন—

ব্রনর সমস্যা কমাতে : ব্রনর সমস্যা কমায় নারকেলের দুধ। বিশেষ করে যাঁদের অয়েলি স্কিন, তাঁদের ক্ষেত্রে ত্বকের যত্ন নেওয়ার অন্যতম উপকরণ কোকোনাট মিল্ক। এর সাহায্যে ত্বকে জমে থাকা অতিরিক্ত তেলও বেরিয়ে যায়। পাশাপাশি ত্বক থাকে আর্দ্র এবং নরম। সেই সঙ্গে ত্বকের জেল্লাও ফিরে আসে।

চুলের পরিচর্যায় : রুক্ষ, শুষ্ক চুলের জেল্লা ফেরাতে কাজে লাগে নারকেলের দুধ। অর্থাৎ ভাল ময়শ্চারাইজার বা এক্ষেত্রে কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে। মাথার তালু বা স্ক্যাল্পের বিভিন্ন চুলকানি, র‍্যাশ, অ্যালার্জি, অস্বস্তি দূর করতেও নারকেলের দুধের জুড়ি মেলা ভার। তাই রুক্ষ, শুষ্ক চুল যাঁদের রয়েছে, তাঁরা অনায়াসেই কন্ডিশনার হিসেবে নারকেলের দুধ ব্যবহার করতে পারেন।

মেকআপ রিমুভ করতে : মেকআপ রিমুভার বা ক্লেনজার হিসেবে ব্যবহার করা যায় নারকেলের দুধ। এর ফলে ত্বক আর্দ্র থাকে। শুধু যে মেকআপই তোলা সম্ভব, তা কিন্তু নয়। বরং স্কিন ময়শ্চারাইজার হিসেবেও খুব ভাল কাজ দেয় নারকেলের দুধ।

ত্বক উজ্জ্বল করতে : ত্বক উজ্জ্বল করতে নারকেল দুধ দিয়ে তৈরি প্যাক ব্যবহার করুন। নারকেল দুধের সঙ্গে অ্যালোভেরা, মধু বা শসা দিয়ে ফেসপ্যাক বানান। ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে ২ বার করতে পারেন। নিয়মিত ব্যবহারে নারকেল দুধের জাদুকরী প্রভাব অবশ্যই দেখতে পাবেন।

বলিরেখা দূর করতে : নারকেল দুধে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন ও ফ্যাটি এসিড যা আমাদের ত্বকের বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে।

স্ক্রাবার : বাড়িতে ফেসয়াল বা স্ক্রাব করার জন্য প্যাক তৈরি করলে, তার মধ্যে অবশ্যই রাখুন নারকেলের দুধ। ওটসের সঙ্গে নারকেলের দুধ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে কিংবা অলিভ অয়েলের সঙ্গে কোকোনাট মিল্ক মিশিয়ে মুখে ম্যাসাজ বা স্ক্রাব করলে মরা কোষ ঝরে যায়।আমাদের ত্বকের সাধারণ কিছু যত্ন দরকার নিয়মিত। তবেই সুস্থ ত্বক পাওয়া সম্ভব। এই সস্তা প্রাকৃতিক নিয়ম মেনে চলুন আর তফাত টের পান নিজেই। দেখুন নারকেলের দুধের সাধারণ এই রুটিন আপনার ত্বকে কী আমূল পরিবর্তন এনে দেয়।