অন্যের নথি হাতিয়ে ফাইনান্সে কেনা হত বাইক , গ্রেফতার জুলফিকার মোল্লা

অন্যের নথি হাতিয়ে ফাইনান্সে কেনা হত বাইক , গ্রেফতার জুলফিকার মোল্লা

দক্ষিণ ২৪ পরগনা   বাইক চুরি নয়, একেবারে বাটপারি। অভিনব কায়দায় নতুন বাইক কিনে তা বিক্রি করে দেওয়ার কারবার ফেঁদেছিল দক্ষিণ ২৪ পরগনার চন্দনেশ্বরের জুলফিকার মোল্লা । তাকে গ্রেফতার করল পুলিস। অভিযোগ পেয়ে প্রথম কিছুটা অবাক হয়ে গিয়েছিল ভাঙড় থানার পুলিস। এলাকার আলমগীর মোল্লা নামে অভিযোগ করেন, এলাকারই এক যুবক অন্যের নথি জালিয়াতি করে ফাইনান্সে বাইক কিনে তা বিক্রি করে দিচ্ছে।

ওই অভিযোগ ভিত্তিতে তদন্ত নামে পুলিস। চন্দনেশ্বর থেকে গ্রেফতার করা হয় জুলফিকার মোল্লা নামে এক যুবককে। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, অনলাইনে বিভিন্ন কাজকর্ম করার জন্য একটি দোকান রয়েছে জুলফিকারের। সেই দোকানে বসেই চলতো জালিয়াতি। গ্রাহকদের নথি নিয়ে সে সোজা চলে যেত বাইকের শো রুমে। তারপর সেখান থেকে দামী বাইক নিনে নিত।

তার পর সুযোগ বুঝে তা অন্যকে বিক্রি করে দিত। এভাবেই চলছিল। শেষপর্যন্ত এনিয়ে পুলিসে অভিযোগ করেন আলমগীর। অভিযুক্তকে গ্রেফতারের পাশাপাশি তার কাছ থেকে ৪টি নতুন বাইক উদ্ধার করেছে পুলিস। জুলফিকারের ওই কারবারের সঙ্গে বড় কোনও চক্র জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিস। আজ অভিযুক্ত জুলফিকারকে বারুইপুর আদালতে পাঠায় পুলিস।