টারগেট শুভেন্দু অধিকারী| বিরোধী দলনেতাকে ভবানী ভবনে তলব সিআইডির

টারগেট শুভেন্দু অধিকারী| বিরোধী দলনেতাকে ভবানী ভবনে তলব সিআইডির

সোমবার রাজ্যে বিরোধী দলনেতাকে ভবানি ভবনে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। সকাল ১১টায় তাঁকে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। তবে এই মামলা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিহিংসার জন্যে করা হয়েছে বলে বারবার দাবি করেছেন নন্দীগ্রামের এই বিধায়ক। যদিও তবে সিআইডির জেরার মুখে সোমবার শুভেন্দু হবেন কিনা সে বিষয়ে কোনও তথ্য এখনও পাওয়া যায়নি। তবে বিজেপির দাবি, ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর থেকে অত্যাচার চলছে।

বিজেপি নেতাদের ফাঁসাতে মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে। ভয় দেখানো হচ্ছে। ইতিমধ্যে শুভেন্দু বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হয়েছে। আইনি ভাবে লড়াই হবে বলে দাবি এক বিজেপি নেতার। তবে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। উল্লেখ্য, রাজ্যের মন্ত্রী থাকাকালীন শুভেন্দু অধিকারীর দেহরক্ষীর মৃত্যু হয় শুভব্রতর।  ২০১৮ সালের ১৩ অক্টোবর কাঁথির পুলিশ ব্যারাকে মাথায় গুলি লেগে গুরুতর জখম হন শুভব্রত চক্রবর্তী।

পর দিনই তাঁর মৃত্যু হয় তাঁর। সেই ঘটনার প্রায় আড়াই বছরের মাথাতে নয়া মোড়! গত মাসখানেক আগে নতুন করে একটি এফআইআর দায়ের করেন মৃত শুভব্রত চক্রবর্তীর স্ত্রী সুপর্ণা চক্রবর্তী। যা নিয়ে তীব্র চাঞ্চল্য তৈরি হয়। বলা প্রয়োজন, স্বামীর মৃত্যুর প্রায় আড়াই বছর পর মৃত্যুর তদন্ত চেয়ে কাঁথি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন স্ত্রী সুপর্ণা চক্রবর্তী। সুপর্ণাদেবীকে অনেকে প্রশ্ন করেন, তিনি স্বামীর মৃত্যুর এতদিন বাদে এফআইআর করছেন কেন? তিনি বলেন, শুভব্রতর মৃত্যুর পরেই এফআইআর করা সম্ভব ছিল না।

এখন উপযুক্ত পরিস্থিতি দেখে তিনি পুলিশে অভিযোগ জানাচ্ছেন। তখনই অনেকে আন্দাজ করেছিলেন, এবার সিআইডি শুভেন্দুবাবুকে ডাকাডাকি করতে পারে। প্রাক্তন মন্ত্রীর বাড়িতে গিয়ে গোয়েন্দারা তাঁকে দীর্ঘক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদ করেন। শুভেন্দুবাবুর সঙ্গে ছিলেন তাঁর ভাই তথা তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। পরে তদন্তকারী অফিসাররা জানান, শুভেন্দুবাবুর বাড়িতে গিয়ে তাঁরা কোনও বাধা পাননি। পরে আবার প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলে তাঁরা জানান। শনিবার রাতে জানা যায়, সোমবার শুভেন্দুবাবুকে ভবানী ভবনে ডাকা হয়েছে। রাজনীতি মহলের দাবি শুভেন্দু অধিকারীকে টারগেট করছে সরকার।