Copa America|কোপা আমেরিকার ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা

Copa America|কোপা আমেরিকার ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা

মেসির শাপমোচন, আর্জেন্টিনার শাপমোচন। ১৯৯৩ সালের প্রথম বার কোপা আমেরিকার ফাইনাল (Copa America final) জিতল আর্জেন্টিনা (Argentina) । ২০১৬ তে চিলির কাছে হারের পর সমর্থকদের মনে প্রশ্ন ছিল, মেসির জাতীয় দলের জার্সিতে খেতাব জেতার স্বপ্ন কি তাহলে অপূর্ণ থাকবে? কিন্তু নিয়তি ততটা নিষ্ঠুর হল না। সৌজন্যে ডি মারিয়া। ১-০ গোলে জিতে নিজের জাতীয় দলের জার্সিতে প্রথম আন্তর্জাতিক ট্রফি জিতলেন তিনি। প্রথমার্ধের খেলায় ১-০ গোলে পিছিয়ে থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধে কার্যত লঙ্কার ঝাঁঝ নিয়ে নামে ব্রাজিল।

একের পর এক দ্রুত উঠে আসা আক্রমণ পড়তে থাকে আর্জেন্তাইন রক্ষণে। ম্যাচের ৫২ মিনিটে সাম্বাবাহিনীর রিচার্লিসনের গোল অফসাইডের কারণে বাতিল হয়। এরপরেও একের পর এক আক্রমণ আসতেই থাকে। নীল -সাদা দুর্গের দায়িত্বে থাকা এমিলিয়ানো মার্তিনেজ একের পর এক গোল বাঁচিয়ে যান।এমনও সময় আসে যখন লিও মেসিকেও ডিফেন্সে উঠে আসতে হয়েছিল।

আবার একটা সময় ট্যাকেল করা নিয়ে দুই দলের মধ্যে উত্তেজনাও ছড়ায়। বিশাল মারাকানার মাঠে এই ঐতিহাসিক ম্যাচের সাক্ষী থাকতে আজ হাজির ছিলেন তিন হাজার দর্শক, আর বিশ্ব জুড়ে কোটি কোটি দর্শক। অঙ্ক খুবই কঠিন আর খেলায় দিনের শেষে অঙ্কেরই দাপট টের পাওয়া গেল। কোপা আমেরিকার ফাইনালে (Copa America Final) প্রথমার্ধের শেষে ১-০ গোলে এগিয়ে খেলা শেষ করে আর্জেন্টিনা।

গোল যাঁর নামের পাশে খোদাই করা তিনি অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। দুই দলের দুই মহাতারকা অর্থাত্‍ লিওনেল মেসি ও নেইমার দুজনেই কিছু ঝলক দেখালেও , বিপক্ষের কোচের স্ট্র্যাটেজির কাছে কার্যত বোতলবন্দি থাকলেন। মেসি ও নেইমার দৌঁড়লেই তিনজন করে মার্কিংয়ের চেনা ছকই দেখা গেল প্রথমার্ধে। ম্যাচের ২২ মিনিটে আর্জেন্টাইন রক্ষণের ভুলের সুযোগ নিয়ে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া এগিয়ে দেন নীল -সাদা বাহিনীকে।

রেনান লোডির ভুল আর তারপরে এডারসন নেট খুঁজে পেতে ভুল করেননি অভিজ্ঞ ডি মারিয়া। দেখে নিন সেই গোল। এদিন প্রথমার্ধের খেলায় ৫৪ শতাংশ বল পজেশান ছিল ব্রাজিলের। অন্যদিকে আজুরি বাহিনী ৪৫ শতাংশ বল পজেশন নিয়ে খেলল। সেলেকাওবাহিনী ২ টি শট গোলবাউন্ড ছিল, তার একটি অন টার্গেট ছিল। অন্যদিকে নীল সাদা বাহিনীর ক্ষেত্রে একটি শট অন টার্গেট আর সেটিই গোল ছিল।