ভ্যাকসিন নিলেও নাগরিকদের ভারতে না যাবার পরামর্শ আমেরিকায়

ভ্যাকসিন নিলেও নাগরিকদের  ভারতে না যাবার পরামর্শ আমেরিকায়

করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল অবস্থা ভারতে। রোজ রোজ লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ। ইতিমধ্যে এদেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে আড়াই লাখের গণ্ডি। এমন অবস্থায় ভারতে যাতায়াতে বিপদ দেখছে আমেরিকাও। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় এক স্বাস্থ্য সংস্থা মার্কিন নাগরিকদের আপাতত ভারতে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। এদেশের উদ্বেগজনক করোনা পরিস্থিতির জেরেই এমন পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

মার্কিন সংস্থা 'দ্য সেন্টার ফর ডিসিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন'-এর তরফ থেকে একটি বিবৃতি জারি করে এদিন জানানো হয়েছে, ভ্যাকসিন নেওয়া হলেও এই মুহূর্তে ভারতে না যাওয়াই ভাল। বিবৃতিতে মার্কিন সংস্থা বলেছে, 'করোনা সংক্রমণের মাঝে ভারত সফর এখন এড়িয়ে চলাই ভাল। এমনকি ভ্যাকসিনের সবকটি ডোজ যাঁদের নেওয়া হয়ে গেছে তাঁদেরও সংক্রমণের ঝুঁকি থাকতে পারে।'

তবে একান্ত যদি ভারতে যেতেই হয়, তবে ভাল করে ভ্যাকসিন নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে নাগরিকদের। এদিকে শুধু আমেরিকাই নয়, ভারত যাত্রায় অনুমতি দিতে নারাজ ব্রিটেনও। সোমবারই ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে ভারতে আপাতত যাতায়াত করা যাবে না। ব্রিটেনের স্বাস্থ্যসচিব ভারতকে 'লাল' তালিকাভুক্ত ঘোষণা করেছেন। বলা হয়েছে, ভারত থেকে কেউ এখন ব্রিটেনে প্রবেশ করতে পারবেন না। শুধুমাত্র ব্রিটিশ বা আইরিশ নাগরিকত্ব থাকলে তবেই ছাড় পাওয়া যাবে।

গত জানুয়ারি মাসে ভারত সফরে আসার কথা ছিল ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের। কিন্তু সেসময় ব্রিটেনে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় সেই সফর বাতিল করা হয়েছিল। আগামী সপ্তাহেই ফের ভারতে আসার কথা ছিল বরিসের। কিন্তু ভারতের সংক্রমণের হার দেখে সে ঝুঁকি আর নিলেন না তিনি। ব্রিটেনের মতো কড়াকড়ি না করলেও এবার ভারত সফর এড়িয়ে চলতে বলল আমেরিকাও।