মালদায় বৌদিকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ সিভিক ভলেন্টিয়ারের বিরুদ্ধে

মালদায় বৌদিকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ সিভিক ভলেন্টিয়ারের  বিরুদ্ধে

মালদা-  পারিবারিক বিবাদের জেরে নিজের বৌদিকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল সিভিক ভলেন্টিয়ার সহ দুই দেওরের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে মালদা জেলার গাজোল থানার রানীগঞ্জ এলাকায়। মৃত গৃহবধূর নাম সুমিত্রা ঘোষ বয়স(২৯) বছর। আক্রান্ত হয়েছেন স্বামী রাজু ঘোষ। অভিযুক্তরা হলেন উজ্জ্বল ঘোষ ও অমিত ঘোষ।

উজ্জ্বল ঘোষ গাজোল থানার সিভিক ভলেন্টিয়ার কর্মরত রয়েছেন। পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় দীর্ঘদিন ধরেই জমি জায়গা নিয়ে তাদের মধ্যে পারিবারিক বিবাদ লেগেই রয়েছে। এই নিয়ে গতকাল রাতে শুরু হয় তিন পরিবারের গন্ডগোল। সেই গন্ডগোল জেরেই দাদা রাজু ঘোষ ও বৌদি সুমিত্রা ঘোষকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ ওঠে সিভিক ভলেন্টিয়ার উজ্জ্বল ঘোষ ও তার ভাই অমিত ঘোষ এর বিরুদ্ধে।

আক্রান্তদেরকে তড়িঘড়ি স্থানীয়রা শুক্রবার রাতে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায় গাজোল গ্রামীণ হাসপাতালে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে দুইজনকে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। চিকিৎসা চলাকালীন ভোররাতে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু হয় সুমিত্রা ঘোষের। আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন মৃত গৃহবধূর স্বামী রাজু ঘোষ।

মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। এই ঘটনায় অভিযুক্ত সিভিক ভলেন্টিয়ার উজ্জ্বল ঘোষ ও অমিত ঘোষ এর বিরুদ্ধে গাজল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। শুধু পারিবারিক বিবাদ না এর পেছনে অন্য কোনো কারণ রয়েছে তদন্ত শুরু করেছে গাজোল থানার পুলিশ।