রাজ্যে দমকল দফতরে নিয়োগ নিয়েও দুর্নীতি, পিএসসিকে জরিমানা কোর্টের

রাজ্যে দমকল দফতরে নিয়োগ নিয়েও দুর্নীতি,  পিএসসিকে জরিমানা কোর্টের

স্কুলে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ মামলা চলছে কলকাতা হাই কোর্টে। সেই আবহে দমকল দফতরে নিয়োগ নিয়েও দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। মামলা হয় কলকাতা হাইকোর্টে। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে হলফনামা জমা দেওয়ার জন্য আরও সময় চেয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি)। সোমবার তাদের ১০ হাজার টাকা জরিমানার নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ।

জরিমানার শর্তে পিএসসিকে অতিরিক্ত দু’সপ্তাহ সময় দিল হরিশ টন্ডনের ডিভিশন বেঞ্চ।  সোমবার ডিভিশন বেঞ্চে মামলাটির শুনানি হয়। সেই সময় বিচারপতিরা জানিয়েছেন, তাঁরা চান মামলাগুলোর দ্রুত নিষ্পত্তি হোক। বার বার শুনানি পিছিয়ে দেওয়া উচিত নয়। জরিমানার নির্দেশ দিয়ে জানানো হয়, তিন সপ্তাহ পর দমকলে নিয়োগ সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলাটি আবারও শুনানির জন্য উঠবে।

দেড় হাজার পদে নিয়োগ প্রক্রিয়ার উপর যে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ ছিল, তার মেয়াদ আরও চার সপ্তাহ বাড়িয়েছে আদালত।  প্রসঙ্গত, দমকলের অপারেটর পদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করে পিএসসি। দেড় হাজার কর্মী নিয়োগের কথা ছিল। ২০১৮ সালে লিখিত পরীক্ষা হয়। মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয় পরে। এই নিয়োগ নিয়েই দুর্নীতির অভিযোগ তুলে রাজ্য ট্রাইব্যুনালে মামলা করেন বাসুদেব ঘোষ-সহ কয়েক জন চাকরিপ্রার্থী।

তার পর মামলাটি কলকাতা হাই কোর্টে যায়। মামলাকারীদের অভিযোগ, অসংরক্ষিত (জেনারেল) এক প্রার্থীকে চাকরি দেওয়ার জন্য সংরক্ষিতের তালিকায় তাঁর নাম তুলে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি, কয়েকটি প্রশ্নে ভুল ছিল বলেও অভিযোগ। একই সঙ্গে অভিযোগ ওঠে, সমাধান না করেই নিয়োগ প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখা হয়েছে। অনেক প্রার্থী একই নম্বর পেয়েছেন। নিয়োগকর্তারা পছন্দের প্রার্থীকে মৌখিক পরীক্ষায় বেশি নম্বর পাইয়ে দিয়ে চাকরির সুযোগ করে দিয়েছেন। মামলাকারীদের এ সব অভিযোগ অবশ্য মানেনি রাজ্য।