ধুন্দলঃ জেনে নিন অবহেলার ধুন্দলের স্বাস্থ্য উপকারিতা

ধুন্দলঃ  জেনে নিন অবহেলার ধুন্দলের স্বাস্থ্য উপকারিতা

বেগুনের  মতো সরাসরি অপমানজনক নাম না হলেও, ধুন্দল বা ধোধল অবহেলায় পথের পাশে লতা জাতীয় এই একবর্ষী গাছেরফল অবহেলায় ঝুলে থাকে অন্য আর পাঁচটি জঙ্গলের মধ্যে। জানেন কি! এই ধুন্দল দক্ষিণ আমেরিকার অত্যন্ত জনপ্রিয় খাদ্য! চীন জাপান ইতালি তুরস্ক মিশর আর্জেন্টিনার মতো বিভিন্ন দেশে রীতিমতো চাষ করা হয় ঔষধি, পথ্য এবং খাদ্যদ্রব্য যোগানের কারণে।

ধুন্দল (Sponse gourd ) চাষ করা হয় সাধারণত সবজি হিসেবে খাওয়ার জন্য। যার বৈজ্ঞানিক নাম Luffa cylindrica এবং পরিবার Cucurbitaceae .আমাদের দেশে দুই ধরণের ধুন্দল পাওয়া যায়। একটি হলো সাধারণত আমরা যেটা খাই। এর শাঁস তিতা নয় সুস্বাদু এবং নরম। অন্যটি হলো বন্য ধুন্দল, যাকে তিতপল্লা বলা হয়। এর পাকা ফল শুকিয়ে স্পঞ্জের মতো গায়ে সাবান মাখার খোসা তৈরি করা হয়। হ্যাঁ আসলে তেতো এবং মিষ্টি এই দুই প্রকারের মধ্যে ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, ভিটামিন কে , বিটা ক্যারোটিন থাকার ফলে মিষ্টি ধুন্দল অর্শ ,শোথ, জন্ডিস, টিবি, হেঁচকি, কৃমি, জ্বরের মতো নানা রোগের পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এই ফল।

অন্যদিকে তেতো ধুন্দল কৃমি, শ্লেষ্মা, শূল, রোগীর পক্ষে ভীষণ উপকারী। আয়ুর্বেদিক মতে ধুন্দল বেটে ব্যথার স্থানে লাগালে ফোলা কমে, কুষ্ঠ রোগ, এবং ক্যান্সারের জন্য পথ্য হিসেবে ভীষণ উপকারী। জিমেইল লতাপাতা কফ নাশক লিভারের অসুখ ম্যালেরিয়া উপশমে ব্যবহৃত হয় অব্যর্থ পথ্য হিসেবে। তবে ফলের পুষ্টিগুণ না জানলেও, ফল পেকে গাছ শুকিয়ে যাওয়ার পর ফলের জালিকা বা ছোবড়া দেহ পরিষ্কারের জন্য অতীতে আমরা ব্যবহার করি নি এমন মানুষ বোধহয় নেই!

কালের নিয়মে, কৃত্তিম হয়েছি আমরা সাবান দিয়ে স্নান করার সময় নানান উপকরণ ব্যবহার করে থাকি আমরা। অথচ সম্পূর্ণ ভেষজ ওই ছোবড়ায় প্রতিটি কোষের মধ্যে সুপ্ত অবস্থায় ত্বকের উপকারী উপাদান হিসেবে সঞ্চিত থাকে। যার কদর বুঝে এখনো, অনেকেই খোঁজ করে থাকেন! হজম ক্ষমতা বাড়ায় ধুন্দুল। ফাইবার সমৃদ্ধ হওয়ায় পেটের নানাবিধ সমস্যা ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে ও পাশাপাশি অন্ত্রের স্বাস্থ্য ভালো রাখে।

* হার্ট ভালো রাখে এটি। ক্যালরির পরিমাণ অনেক কম এবং ফোলেট, পটাশিয়াম ও ম্যাগনেসিয়ামের পরিমাণ বেশি থাকায় হার্টের ভালো রাখে। এতে থাকা ফাইবার স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়।

* এই সবজিতে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং বিটা ক্যারোটিন। যা দৃষ্টিশক্তি ভালা রাখে।

* এতে স্টার্চ ও কার্বোহাইড্রেট কম থাকে এবং ফাইবার ও পানির পরিমাণ বেশি থাকে। তাই এটি স্বল্প ফ্যাটযুক্ত খাবার হিসেবে বিবেচিত হয়। অল্প সময়ের মধ্যেই শরীরের ওজনকে নিয়ন্ত্রণ আনে।

* এই সবজি ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে বিটা-ক্যারোটিন এবং ভিটামিন সি। যা ক্যান্সারের জীবাণু থেকে শরীরকে রক্ষা করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

* এই সবজিতে থাকা লুটেইন এবং জেক্সানথিন নামক দুটি ক্যারোটিনয়েড হাড় এবং দাঁত শক্তিশালী করে। এছাড়াও এতে থাকা ভিটামিন কে, ম্যাগনেসিয়াম এবং ফোলেট হাড়ের বৃদ্ধিতে খুবই উপকারী।

* মাথার চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। ধুন্দুলে থাকা ভিটামিন-বি ২, ভিটামিন-সি এবং জিঙ্ক মাথার চুলের বৃদ্ধিতে ও চুলের গোড়া শক্ত করে। এছাড়া শুষ্ক, রুক্ষ চুল ও খুশকি দূর করে।

[ আরও পড়ুন ভক্তের ভগবান ]