ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ১২ কোটির বাড়ি নিয়ে বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ

ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ১২ কোটির বাড়ি নিয়ে বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ

এক সময় তো সব কিছুতেই তিনি সিবিআই তদন্ত দাবি করতেন, হঠাত্‍ কী ঘটল যে বিশ্বাস চলে গেল, এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশে এমনটাই প্রশ্ন রাজ্য বিজেপি (bjp) সভাপতি দিলীপ ঘোষের (dilip ghosh)। সারদা তদন্তে সিবিআই(cbi)-এর সক্রিয়তা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (mamata banerjee) মন্তব্যের প্রেক্ষিতে পাল্টা মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ। একইসঙ্গে তিনি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ি নিয়েও কটাক্ষ করেন। শনিবারই জানা গিয়েছিল কয়লা কাণ্ডের তদন্ত ইডির তরফে দিল্লিতে তলব করা হয়েছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী রুজিরাকে।

এব্যাপারে দিলীপ ঘোষ বলেন, যখন কান ধরে টানছে, তখন মনে পড়ছে। কটাক্ষ করে তিনি বলেন, বেশ খাচ্ছিলেন, কামাচ্ছিলেন, ভালই চলছিল। শনিবার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন কয়লা রাজ্যের বিষয় নয়, কেন্দ্রের। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে তদন্তে কেন্দ্রকে নিশানা করেছিলেন। যা নিয়ে পাল্টা দিলীপ ঘোষ বলেন, ভাইপো যে ১২ কোটি টাকার বাড়িতে থাকেন, সেটা কোথা থেকে আসল, তা লোকে বোঝে।

নির্বাচনের সময় সবাই খানিকটা উত্তর দিয়েছে বলেো মন্তব্য করেন তিনি। কয়লা-গরু-বালি পাচার কাণ্ডে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার তদন্ত নিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, কারা এইসব বিষয়ে যুক্ত তা সবাই জেনে গিয়েছেন। সেই কারণে এখন তাঁরা বিদেশে পালিয়ে দিয়েছেন। ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনার তদন্তে সিবিআই বিজেপি নেতাদের সঙ্গে করে নিয়ে যাচ্ছে বলে শনিবার অভিযোগ করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই প্রসঙ্গে এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, এক সময় তো তিনি সব কিছুতেই সিবিআই তদন্ত দাবি করতেন, কিন্তু এখন এমন কী হল যে তাতে বিশ্বাস চলে গেল?

দিলীপ ঘোষ বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগ তোলা হলেও রাজ্য কিছুই হয়নি। আর তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবসে মুখ্যমন্ত্রী নিজের বলেছেন, মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্ট অনুযায়ী বিজেপির ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেখানেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, তৃণমূলেরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এব্যাপারে দিলীপ ঘোষ বলেন, তৃণমূলের ১৬ জন মারা গেলেও কোথাও সেই কথা বলা হচ্ছে না কেন? দিলীপ ঘোষ ফের একবার অভিযোগ করেন রাজ্যে গণতন্ত্র হত্যা করা হয়েছে, স্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে।

শনিবার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ত্রিপুরায় পা রাখলে সেখানে ভূমিকম্প হবে। এব্যাপারে এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করে বলেন, যাঁরা যাঁরা ত্রিপুরায় গিয়েছেন, তাঁরা সবাই কাঁপছেন। আর সেখানে উত্‍পাত করছেন। এটাই এখন তৃণমূলের কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি আরও বলেন, একটা সময় সিপিএম বাঙালির বদনাম করেছিল আর এখন তৃণমূল প্রমাণ করছে বাঙালি দাঙ্গাও করতে পারে।