স্ট্রেচ মার্কস থেকে মুক্তি পেতে দেখে নিন ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি

স্ট্রেচ মার্কস থেকে মুক্তি পেতে দেখে নিন ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি

আজবাংলা গর্ভবতী মহিলাদের মধ্যে এটি খুবই প্রাথমিক বিষয়। এই গোলাপি রেখাগুলিকে বলা হয় স্ট্রেচ মার্কস। এইগুলি উরু, পেটে, স্তন ও নিতম্বের পাসেই দেখা যায়। এইগুলি হয় টার প্রাথমিক কারন হল মানব দেহের ইলাস্টিকের ফাইবারগুলো যখন ভাঙতে শুরু করে তখনই ত্বকের ওঠে যায় এই বিশেষ ধরনের রেখাগুলি। যদি এই বিশেষ রেখাগুলি থেকে শরীর থেকে সরাতে চান, দেখে নিন কি কি করতে হবে।

১} ভিটামিন-সি: ইলাস্টিসিটি বজায়ে রাখতে কোলাজেন ত্বকের মধ্যে এক বিশেষ ভূমিকা পালন করে। বিভিন্ন ফল ও সব্জির মধ্যে পাওয়া যায় ভিটামিন সি, বিশেষত টক জাতীয় ফল যেমন কমলালেবু ও পাতিলেবু। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হল স্ট্রেচ মার্কস দূরে রাখা। এর পাশাপাশি, ত্বকের উপরে পড়া রিঙ্কেল সরাতেও আমাদের সাহায্য করে।

২} প্রচুর পরিমানে জল পান করা দরকার: নরম ত্বকের চেয়ে রুক্ষ ত্বকে এই স্ট্রেচ মার্কসের দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা বেশি। শরীরে জলের ঘাটতি পূরণ করার জন্য সারাদিন প্রচুর তরল জাতীয় জিনিস পান করুন। দিনে ঠিকমত জল পান করলে আমাদের ত্বক নরম এবং আদ্র থাকে।

৩} দেহে আদ্রতা বজায় রাখতে হবে: গর্ভাবস্থায় রুক্ষতা এবং চুলকানি থেকে রেহাই পেতে বজায় রাখুন নিজের ত্বকের আদ্রতা। সোয়া মাখন অথবা কোকো বাটারক্রিম আপনার ত্বককে আদ্র এবং হাইড্রেটেড রাখবে সারাদিন।

৪} প্রোটিনযুক্ত খাবার খেতে হবে: নিজের ডায়েট এ যোগ করুন ভিটামিন-সি, ভিটামিন-ডি, ভিটামিন-ই, জিঙ্ক এবং প্রোটিনযুক্ত খাবার। গর্ভাবস্থায় প্রয়োজনীয় কোন পুষ্টির যাতে কোনওরকম অভাব না হয় সেটা নিশ্চিত করতে সঠিক ডায়েট পালন করুন। দেহে প্রয়োজনীয় পুষ্টির অভাবে অনেকসময় স্ট্রেচ মার্কস দেখা দিতে পারি।

৫} ভিটামিন-ডি: সূর্যের আলো সরাসরি আমাদের শরীরে ভিটামিন-ডি প্রদান করে। দুধ, দই ইত্যাদির থেকেও আপনি পেয়ে যেতে পারেন এই বিশেষ ভিটামিন। সঠিক পরিমাণ ভিটামিন-ডি স্ট্রেচ মার্কস ত্বকের সাথে মিলিয়ে দিতে সাহায্য করে। ত্বককে শক্তিশালী ও স্বাস্থ্যকর বানানোর অন্যতম প্রধান উপাদান হল ভিটামিন ডি।

৬} শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে: ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখলে এই স্ট্রেচ মার্কস দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়। এইগুলির সম্ভাবনা বেড়ে যায় তখনই যখন খুব দ্রুত গতিতে ওজন বাড়তে শুরু করে।