জানেন কি শুধু নিরামিষ খাবার খেয়েই গ্লামার ধরে রেখেছেন কোন বলিউডের তারকারা

জানেন কি শুধু নিরামিষ খাবার খেয়েই গ্লামার ধরে রেখেছেন কোন বলিউডের তারকারা

আজবাংলা      উদ্ভিজ প্রোটিনযুক্ত ডায়েট আমাদের শরীরের জন্য খুবই ভালো। দেহের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে এই ডায়েটের বিকল্প নেই। তবে ভেজিটেরিয়ান ডায়েট কিন্তু ভেগান ডায়েট নয়। ভেগান ডায়েটে দুদ্ধজাত সব খাবারও বর্জন করা হয়। যা ভেজিটেরিয়ান ডায়েটে করা হয় না।

খবর মোতাবেকে ভেজিটেরিয়ান ডায়েট মেনে চললে তা হার্টের সমস্যা কমায়, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, কোলেস্টেরল এবং কোনও কোনও ক্যানসার পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণে রাখে।

বলিউডের তারকাদের অনেকেই যে কট্টর ভাবে মেনে চলেন এই ভেজিটেরিয়ান ডায়েট, সে খবর রাখেন? দেখে নেওয়া যাক কোন কোন তারার নাম উঠে আসে এই তালিকায়।শাহিদ কাপুর। দীর্ঘ দিন ধরেই নিরামিষাশী শাহিদ কাপুর। পশু অধিকার নিয়ে কাজ করা সংস্থা পেটার বেশ কিছু প্রচারের মুখপাত্রও শাহিদ।

পেটা তাঁকে এশিয়ার সবচেয়ে আকর্ষণীয় নিরামিষাশীর তকমা দিয়েছিল ২০১১ সালে। প্রাক্তন প্রেমিকা করিনা কাপুর খানকেও না কি ভেজিটেরিয়ান ডায়েটে উৎসাহিত করেছিলেন শাহিদ।করিনা কাপুর খান। পঞ্জাবি পরিবারে সাধারণত বাঙালিদের মতোই মাছ, মাংস মাস্ট। তবে বেবো আমিষ খাওয়া ছেড়েছেন বেশ কিছু বছর আগে।

স্বাস্থ্য সচেতন করিনা সুস্থ থাকতেই প্রাণীজ প্রোটিন খাওয়া ছেড়েছিলেন। তবে নিরামিষাশী হলেও তিনি কিন্তু রীতিমতো খাদ্যরসিক। ঘি-ভাত, রুটি-ডাল, সিঙ্গারা, কচুরি কিছুই বাদ রাখেন না খেতে।আলিয়া ভাট। বাবা মহেশ ভাটের ইচ্ছেতেই না কি আমিষ খাওয়া ছেড়েছিলেন আলিয়া। ২০১৭ সাল থেকে নিরামিষ খান 'কলঙ্ক' তারকা।

গরম কালে সুস্থ থাকতে, হালকা খেতে প্রথম নিরামিষ ডায়েটে অভ্যস্ত হয়েছিলেন। সেই অভ্যেস আর ছেড়ে যায়নি আলিয়াকে। অনুষ্কা শর্মা। এমনিতেই পশুপাখি খুব ভালোবাসেন অনুষ্কা। পেটা-র প্রচারে একাধিক বার দেখা গিয়েছে বিরাট-ঘরণীকে। পরিবেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বাঁচার এটাই সব চেয়ে ভালো উপায় বলে মনে করেন 'পিকে' -র অভিনেত্রী।

তবে অনুষ্কা কিন্তু মেনে চলেন ভেগান ডায়েট।সোনাক্ষী সিনহা। 'লুটেরা' অভিনেত্রী নিরামিষাশী হয়েছেন সম্প্রতি। মূলত প্রাণীহত্যা অপছন্দ, তাই এই ডায়েট বর্জন করে নিরামিষ আহারে অভ্যস্ত হয়েছেন। নতুন খাদ্যাভ্যাসের পর বেশ খানিকটা ওজনও ঝরিয়েছেন শত্রুঘ্ন-কন্যা।অমিতাভ বচ্চন। বিগ বি না কি প্রথম জীবনে ঘোরতর আমিষাশী ছিলেন।

'কুলি'-র সেটে শ্যুটিং এর সময় বড় দুর্ঘটনার মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। দীর্ঘ সময় অসুস্থ থাকার পর তিনি সেটে ফেরেন। শুরু হয় দ্বিতীয় পর্যায়ের ফিল্মি কেরিয়ার। শোনা যায় সেই সময় থেকেই না কি পুরোপুরি নিরামিষাশী ডায়েটে অভ্যস্ত হয়ে পড়েন তিনি।