জ্যোতিষ শাস্ত্রে মতে, কার্ত্তিক পূর্ণিমায় দান করলে রাশি মেনে দাম্পত্য জীবন সুখের হবে

জ্যোতিষ শাস্ত্রে মতে, কার্ত্তিক পূর্ণিমায় দান করলে রাশি মেনে দাম্পত্য জীবন সুখের হবে

আজবাংলা   দান করা একটি অতি মহৎ কাজ। মানুষের কল্যাণে নিজের অর্থ-সম্পদ ব্যয় বা প্রদান করাকে দান করা বলা হয়। দান বিভিন্ন প্রকারের হয়। সরকার তার নাগরিকদের কাছে দেশ রক্ষার্থে তথা জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে অর্থ-সম্পদ সাহায্য চাইলে জনগণ স্বেচ্ছায় তা দিলে তা হচ্ছে এক প্রকার দান।

প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে যেমন ঘূর্ণিঝড়, বন্যা ইত্যাদিতে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষকে অর্থ দিয়ে, জিনিসপত্র দিয়ে সাহায্য করাটাও হচ্ছে একটা দান। মন্দির, মসজিদ, গির্জা, স্কুল, কলেজ ইত্যাদি প্রতিষ্ঠা করাটাও আরেক প্রকারের দান।

আর গরিবকে কেউ যদি অর্থ-সম্পদ প্রদানের মাধ্যমে সাহায্য করে, তা হচ্ছে একটি অন্যতম দান। তবে দান করা বলতে মানুষ সাধারণত গরিবদের অর্থ-জিনিসপত্র দিয়ে, খাওয়া দিয়ে সাহায্য করাটাকেই বোঝে। এই প্রসঙ্গে জ্যোতিষ মতে, কার্তিক মাসের পূর্ণিমায় যদি রাশি মেনে দান করা হয়, তা হলে গ্রহ অবস্থান মজবুত হয়। পাশাপাশি অন্যান্য সুফলও পাওয়া যায়।

বলা হয়েছে, কার্তিক পূর্ণিমার দিনে দান ও স্নান অত্যন্ত গুরুত্ব বহন করে। এ বছর ৩০ নভেম্বর কার্তিক পূর্ণিমা। এ দিন কোনও নদী বা জলকুণ্ডে স্নান করে দান-পুণ্য করা অত্যন্ত শুভ মনে করা হয়।

কর্কট- মানসিক শান্তি লাভের জন্য চাল দান করা উচিত। বৃশ্চিক- কার্ত্তিক পূর্ণিমায় গুড় ও ছোলা বাঁদরকে খাওয়ানো উচিত। এর ফলে শত্রুনাশ সম্ভব। মেষ- কার্ত্তিক পূর্ণিমায় গুড়দান করা শুভ। এতে জীবনের নানান সমস্যা দূর হয়।

 

মিথুন- কার্ত্তিক পূর্ণিমার দিনে অবশ্যই সবুজ মুগ ডাল দান করবেন। এমন করলে দাম্পত্য জীবনে সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। তুলা- এদিন মেয়েদের অবশ্যই পায়েস দান করা উচিত। এমন করলে ঐশ্বর্য লাভ হয়। সিংহ- মান-সম্মানে বৃদ্ধির জন্য গম দান করা উচিত। 

কুম্ভ- কালো বিউলির ডাল অবশ্যই দান করবেন। এর ফলে ব্যবসায় আগত সমস্ত বাধা দূর হবে। মকর- এই রাশির জাতকদের কার্ত্তিক পূর্ণিমায় কম্বল দান করা উচিত। চাকরিতে বাধা দূর করার জন্য এই দান ফলদায়ী। কন্যা- এই দিনে কন্যা রাশির জাতকরা গবাদি পশুকে সবুজ ঘাস খাওয়ালে জীবনের সমস্ত সমস্যা দূর হয়।

মীন- এই রাশির জাতকরা হলুদ ও বেসনের তৈরি মিষ্টি অবশ্যই এ দিন দান করবেন। এর ফলে জীবনে কখনও অর্থের অভাব থাকবে না। বৃষ- এই দিনে মিছরি দান করলে এই রাশির জাতকদের জীবনে সুখ-সমৃদ্ধি বজায় থাকে। ধনু- মন্দিরে অবশ্যই ছোলা দান করুন। কার্ত্তিক পূর্ণিমায় এমন করলে জীবনে সুখ লাভ সম্ভব হয়।