ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা না থাকলেও তোলা যাবে দ্বিগুণ টাকা

ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে  টাকা না থাকলেও তোলা যাবে  দ্বিগুণ  টাকা

আচমকা টাকার দরকার কিন্তু ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পর্যাপ্ত জমা নেই। কী করা যায়! এমন পরিস্থিতি সকলেরই হয়। কিন্তু তারও উপায় রয়েছে। বেসরকারি ব্যাঙ্কে তো বটেই, দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কও এই পরিষেবা দেয়। স্টেট ব্যাঙ্কের এই পরিষেবা অবশ্য সবাই পেতে পারেন না। এর জন্য কিছু নিয়ম রয়েছে। সে সব মানলে এবং ব্যাঙ্ক গ্রাহককে যোগ্য মনে করলেই এমন অতিরিক্ত টাকা তোলার সুযোগ দেয়।

এসবিআই-এর এই পদ্ধতির নাম ওভারড্রাফ্ট অ্যাকাউন্ট। এই সুবিধা নেওয়ার জন্য ব্যাঙ্কে গিয়ে আবেদন করতে হবে এমন প্রয়োজনও নেই। বাড়িতে বসেই মোবাইল থেকে এমন সুবিধা পাওয়া যায়। বেশ কিছু দিন আগেই ব্যাঙ্কের তরফে ঘোষণা করা হয়ে যে, এখন এসবিআই ইয়োনো অ্যাপের মাধ্যমে ওভারড্রাফ্ট অ্যাকাউন্টের সুবিধা পেতে পারেন গ্রাহকরা।

এর জন্য ব্যাঙ্কে একটি স্থায়ী আমানত থাকা দরকার। সেটা অবশ্য যৌথ নামে হলে হবে না। একক নামে স্থায়ী আমানত থাকলে জমা থাকা টাকার ৯০ শতাংশ পর্যন্ত ওভারড্রাফ্ট হিসাবে তোলা যায়। আর সেই সুযোগ নেওয়ার জন্য বাড়িতে বসে অ্যাপের মাধ্যমেই আবেদন করা যায়। আবার স্টেট ব্যাঙ্কে স্যালারি অ্যাকাউন্ট থাকলেও এই সুবিধা পাওয়া যায়।

সে ক্ষেত্রে বেতন হিসাবে যত টাকা ফি মাসে ব্যাঙ্কে জমা পড়ে তার দ্বিগুণ পর্যন্ত ওভারড্রাফ্ট করা যায়। এর জন্য সুদ দিতে হলেও প্রসেসিং ফি বাবদ কোনও খরচ করতে হয় না। শোধ করে দিতে হয় ছ'মাসের মধ্যে। তবে যাঁদের বেতন স্টেট ব্যাঙ্কের মাধ্যমে হয় না, তাঁদের ক্ষেত্রে অন্য নিয়ম। সর্বনিম্ন ২৫ হাজার টাকা এবং সর্বোচ্চ ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত ওভারড্রাফ্ট হিসাবে তোলা যায়।

এটা একরকম ঋণ নেওয়া। এর জন্য সুদের পরিমাণও নির্দিষ্ট। যে স্থায়ী আমানতের প্রেক্ষিতে ওভারড্রাফ্ট, সেখানে যা সুদ তার চেয়ে এক শতাংশ বেশি সুদ নেয় ব্যাঙ্ক। এর জন্যও কোনও প্রসেসিং ফি লাগে না। টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার সর্বোচ্চ সীমা পাঁচ বছর। তবে গ্রাহকের আর্থিক ক্ষমতা ও যোগ্যতা অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেয় ব্যাঙ্ক।