পুজোর আগেই জরুরিভিত্তিতে ছাত্রছাত্রীদের আধার নথিভুক্তকরণ

পুজোর আগেই জরুরিভিত্তিতে ছাত্রছাত্রীদের আধার নথিভুক্তকরণ

এবার স্কুল পড়ুয়াদেরও আধার নথিভুক্ত করবে রাজ্য সরকার। আগামী ১লা অক্টোবর থেকে তার জন্য পাইলট প্রজেক্ট শুরু করছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর। প্রাথমিকভাবে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পড়ুয়াদের এই আধার নথিভুক্তকরণ এর কাজ করা হবে। তবে কী কারণে এই নথিভুক্তিকরণ তার বিষয়ে নির্দিষ্টভাবে নির্দেশিকায় কিছু না বলা হলেও প্রাথমিক ভাবে সরকারি প্রকল্পের সুবিধা দেওয়ার জন্যই এই নথিভুক্তকরণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

পুজোর আগেই এই পাইলট প্রকল্প শুরু করা হলেও পুজোর পরেও এই পাইলট প্রকল্প চলবে বলেই নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে।ইতিমধ্যেই বিভিন্ন জেলার জেলা স্কুল বিদ্যালয় পরিদর্শকরা প্রধান শিক্ষকদের এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশ ও পাঠাতে শুরু করেছে বলে স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর। নির্দেশিকা জানানো হয়েছে যেসব পড়ুয়াদের আধার কার্ড নেই তাদের নাম "বাংলার শিক্ষা" পোর্টালে নথিভূক্ত করতে হবে।

সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত এই নথিভুক্তকরণ এর কাজ চলবে। স্কুল শিক্ষা দফতরের নির্দেশিকা জানিয়েছে রাজ্য স্বরাষ্ট্র দফতরের নির্দেশ মেনেই এই আঁধার নথিভুক্তকরণের কাজ করা হবে। কিভাবে এই আঁধার নথিভুক্তকরণের কাজ হবে তার জন্য আট দফা নির্দেশও দিয়েছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর। আধার নথিভুক্তকরণ এর সময় আগে থেকেই অভিভাবক অভিভাবিকাদের জানাতে হবে যে কখন আধার নথিভুক্তকরণের কাজ হবে, কোন জায়গায় হবে তাও আগে থেকে জানাতে হবে বলে নির্দেশিকায় জানিয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর।

তার জন্য প্রত্যেকটি স্কুলকে ব্যানার মারফত জানিয়ে দিতে হবে কবে কোন ছাত্র-ছাত্রীর আধার নথিভুক্তকরণের কাজ হবে। মূলত স্কুল চত্বর, এসআই অফিস, বিডিও অফিসে এই আঁধার নথিভুক্তকরণ এর কাজ করা যাবে। যেদিন আধার নথিভুক্তকরণের কাজ হবে সেদিন ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক এবং সংশ্লিষ্ট শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উপস্থিত থাকতে হবে কেন্দ্রগুলিতে। নির্দেশিকাও জানানো হয়েছে এই পাইলট প্রকল্পের জন্য আধার কিট দেবে ইউআইডিএআই কর্তৃপক্ষ। তবে ১লা অক্টোবর থেকে ৮ ই অক্টোবর পর্যন্ত এই নথিভুক্তকরণ এর কাজ হলেও পুজোর ছুটির পরেও এই কাজ হবে বলে নির্দেশিকায় জানিয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর।