স্কুলে বাড়ানো হল আরও গরমের ছুটি

স্কুলে বাড়ানো হল আরও গরমের ছুটি

গরমের ছুটি আরও ১১ দিন বাড়ানো হল। আগামী ২৬ জুন পর্যন্ত স্কুলে বাড়ল গরমের ছুটি। বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানাল স্কুল শিক্ষা দফতর। আগে ১৫ জুন পর্যন্ত স্কুলে গরমের ছুটির সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছিল। প্রবল গরমে হাসফাঁস দশা রাজ্যবাসীর। বিশেষত দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়ায় স্বস্তির কোনও লক্ষ্মণ নেই।  দিনের বেলা তীব্র দাবদাহে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেকেই, ঘটছে দুর্ঘটনা।

রবিবার পানিহাটিতে (Panihati) দণ্ড উৎসবে যোগ দিতে গিয়ে গরমে অসুস্থ হয়ে মৃত্যু হয়েছে তিন পুণ্যার্থীর। এই ঘটনায় কার্যত নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। মুখ্যমন্ত্রী এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। আর তাতেই স্কুলপড়ুয়াদের জন্য গ্রীষ্মের ছুটির (Summer Vacation) মেয়াদ বাড়ানোর পরামর্শ দেন তিনি। সেই পরামর্শ মেনে সোমবার স্কুলে গরমের ছুটি নিয়ে নয়া বিজ্ঞপ্তি জারি করল স্কুলশিক্ষা দপ্তর।

ছুটি বাড়ানো হল ২৬ জুন পর্যন্ত। ২৭ তারিখ থেকে স্কুল খুলবে বলে জানানো হয়েছে। আগে স্কুলগুলিতে গরমে ছুটি ছিল ১৫ জুন পর্যন্ত। আরও ১১ দিন তা বাড়ানো হল।  উল্লেখ্য, সরকারি, সরকার পোষিত এবং সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলে গরমের ছুটি আরও বাড়ানো নিয়ে রবিবার শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর সঙ্গে কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তার ভিত্তিতেই শিক্ষা দফতরের এই পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে।  এ বছর অত্যধিক গরমে এ বার এগিয়ে আনা হয়েছিল গ্রীষ্মের ছুটি। এ নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছিল। করোনা কালে এমনিতেই দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ ছিল। তারপর গ্রীষ্মের ছুটি এগোনোয় বিভিন্ন মহলে এই সিদ্ধান্ত সমালোচিত হয়েছিল। শিক্ষা দফতর সূত্রের খবর, রবিবার উত্তর ২৪ পরগনার পানিহাটিতে দণ্ড মহোৎসবে প্রচণ্ড গরমে প্রাণহানি এবং অনেকের অসুস্থ হয়ে পড়ার ঘটনার পরে মুখ্যমন্ত্রী স্কুলের বাচ্চাদের বিষয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করেন।

তাঁর মনে হয়েছে, এমন ভয়াবহ গরম চলতে থাকলে স্কুলপড়ুয়ারা খুবই অসুবিধায় পড়বে। তার পরেই তিনি শিক্ষামন্ত্রীকে ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথা বলেন। বর্ষা উত্তরবঙ্গে পৌঁছে গেলেও দক্ষিণবঙ্গ এখনও তার দাক্ষিণ্য পায়নি। দক্ষিণবঙ্গে অস্বস্তিকর গরম চলছেই।