চুল পড়ে যাচ্ছে? চুল পড়া রোধের উপায় কী কী? টাক নিয়ে চিন্তা দূর করুন এ ভাবে

চুল পড়ে যাচ্ছে? চুল পড়া রোধের উপায় কী কী? টাক নিয়ে চিন্তা দূর করুন এ ভাবে

আজবাংলা   চুল মানুষের সৌন্দর্যের অন্যতম উপাদান। তা শুধু চেহারাকেই আকর্ষণীয় করে তোলে এমনই নয়, ব্যক্তিত্বেও আনে ঝলক। চুল কমে ধীরে ধীরে মাথা ফাঁকা হয়ে যাওয়া নিয়ে তাই চিন্তার অন্ত নেই মানুষের। অনেকে তো কৃত্রিম উপায়ে চুল গজানোর পদ্ধতিরও শরন নিয়ে থাকেন। কিন্তু ঘন ঘন ওষুধ বা নানা রাসায়নিকের ব্যবহার চুলের আরও ক্ষতি করে।

সঙ্গে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার ভয়ও উড়িয়ে দেওয়া যায় না। অথচ এত কিছু ব্যবহার না করে, কেবলমাত্র খাওয়াদাওয়ায় খানিক যত্মবান হলেই কিন্তু এড়ানো যায় টাক। আসলে, এক এক জনের চুলের প্রকৃতি এক এক রকম। তাই চুল পড়া ও গজানোর ক্ষেত্রেও তফাত হয়। কারও চুল পাতলা, কারও বা ঘন।

চুলের প্রকৃতি অনুসারে চুলের যত্নও তা-ই বদলে যায়।চুল পড়ার সমস্যা নারী-পুরুষ নির্বিশেষ সকলের জন্যই বেশ চিন্তার। চুলের স্বাস্থ্যের ক্ষতি হলেই টাক পড়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় কয়েক গুণ। অত্যধিক চুল ঝরা, রুক্ষ চুল, মাথার ত্বকে বিভিন্ন প্রদাহের জন্য বেশির ভাগ সময়ই দায়ী খুসকি।

তাই টাক থেকে দূরে থাকতে খুসকি এড়ানোও খুব গুরুত্বপূর্ণ। তাই খাবারের পাতে রাখুন এমন কিছু, যা আপনার চুল ঝরা তো কমাবেই, সঙ্গে চুলকে কর তুলবে স্বাস্থ্যকর।

পাতিলেবু: লেবুতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন সি। চুলের গোড়া মজবুত করতে কাজে আসে। তাই প্রতি দিন গরম জলে লেবুর রস মিশিয়ে খান। দিনের মধ্যে বার তিনেক খেতে পারলে আরও ভাল।

সামুদ্রিক মাছ: সামুদ্রিক মাছে আছে প্রচুর ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, যা চুলের জন্য অত্যন্ত উপকারী।  চুল ঝরা রুখতে এটি অত্যন্ত কার্যকর। তাই অন্তত সপ্তাহে তিন-চার দিন খাদ্যতালিকায় রাখুন এমন মাছ। এই ধরনের মাছ চোখের জন্যও উপকারী।

আমলকি: ত্রিফলার এই বিশেষ ফল থেকেই চুলের নানা তেল ও প্যাক তৈরি হয়। আমলকিতে রয়েছে অ্যাসকরবিক অ্যাসিড। এ ছাড়া রয়েছে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়ামের মতো খনিজ। চুল ঝরা রুখতে ও চুলের বৃদ্ধিতে যা খুব উপকারী।

গাজর: ‘সুপার ফুড’ গাজর দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমায়, রোগা হতে সাহায্য করে তো বটেই, কিন্তু অনেকেই জানেন না, চুলের যত্নে এর উপকারী দিকটি। গাজরের বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন-এ থাকায় এরা চুলের গোড়াকে মজবুত করে।

সবুজ শাক-সব্জি: ভিটামিন, নানা খনিজ লবণ এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্টের সব চেয়ে ভাল উৎস সবুজ শাক-সব্জি। প্রতি দিন যথেষ্ট পরিমাণে সবুজ শাক-সব্জি খাদ্যতালিকায় রাখলে অন্যান্য উপকারের সঙ্গে চুলের গোড়া মজবুত হবে। সহজে পড়বে না চুল।