প্রায় ২ কোটি টাকার তেলিয়া ভোলা বিক্রি করলো মৎস্যজীবীরা

প্রায় ২ কোটি টাকার তেলিয়া ভোলা বিক্রি করলো মৎস্যজীবীরা

বছরের শুরুতেই মৎস্যজীবীদের জালে একসঙ্গে ১২১টি তেলিয়া ভোলা। যার বাজার দর প্রায় ২ কোটি টাকা। এই বিপুল পরিমাণ মাছকে কেন্দ্র করে শোরগোল পড়ে গিয়েছে দিঘায়। দিঘা মোহনার মৎস্যজীবী এবং মৎস্য ব্যবসায়ী অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে ইতিমধ্যেই মাছগুলিকে নিলামে তোলা হয়েছে৷ শনিবার এই বিপুল পরিমাণ মাছ মোহনায় আনা হলেই শোরগোল পড়ে যায়।

খবর ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। মাছ দেখতে ভিড় জমান স্থানীয় বাসিন্দা ও পর্যটকরা। কেউ কেউ মোবাইলে ছবি তুলে রাখেন মাছের। জানা গিয়েছে, একেকটি মাছের ওজন প্রায় ১৮ কেজি। এই ১২১টি তেলিয়া ভোলা মাছের আনুমানিক বাজারমূল্য প্রায় ২ কোটি টাকা৷ তেলিয়া ভোলা ঝাঁক বেঁধে মূলত গভীর সমুদ্রে থাকে। শুধু গভীর সমুদ্র নয়, এমন জায়গায় সেগুলি থাকে যেখানে মৎস্যজীবীদের যাওয়া নিষেধ।

তাহলে বিশ্বেশ্বরী ট্রলারে কীভাবে উঠল এত তেলিয়া ভোলা? মৎস্য ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, ঝাঁক বেঁধে মাছগুলি চলে এসেছিল মাঝ সমুদ্রে। ঘটনাচক্রে সেই সময়ই জাল ফেলা হয়েছিল। ফলে ঝাঁক ঝাঁক মাছ উঠে এসেছে জালে। এক মৎস্যজীবী জানিয়েছেন, ১২ বছর ধরে তিনি মাছ ধরছেন। কিন্তু একসঙ্গে এত তেলিয়া ভোলা প্রথমবার দেখেছেন তিনি। উল্লেখ্য, এই প্রথম নয়, এর আগেও বিশালাকৃতি মাছ উঠেছে মৎস্যজীবীদের জালে। প্রচুর দামে বিক্রিও হয়েছে তা। কিন্তু একবারে এত মাছ এই প্রথম বলেই খবর।