ওজন কমাতে ফুলের চা

ওজন কমাতে ফুলের চা

ফুল ভালোবাসে না এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া কষ্টকর। তবে এই ফুল শুধুই যে ভালোলাগার সৃষ্টি করে তা কিন্তু নয়। নারীর খোঁপায় সৌন্দর্য বৃদ্ধিতেও সহায়তা করে ফুল। ঠিক তেমনি ওজন কমাতেও ফুলের জুড়ি নেই।মানুষ নানা ধরণের চা পান করে থাকে। তাই যারা চা ছাড়া কিছুই বোঝেন না ওজন কমানোর জন্য রসদ তারা এখান থেকেই নিতে পারেন। তবে এই চা যে কোনো রকমের হলে চলবে না। বিশেষজ্ঞদের মতে, ফুলের চা হতে পারে একইসঙ্গে অসাধারণ স্বাদ গ্রহণ ও ওজন কমানোর মোক্ষম অস্ত্র।চলুন জেনে নেয়া যাক কোন কোন ফুলের চা ওজন কমাতে সহায়ক-

গোলাপের চা:– গোলাপে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় ব্যথানাশক হিসেবে কাজ করে। গবেষণায় দেখা গেছে, যারা ওজন কমাতে চান, তারা গোলাপ চা খেয়ে ওজন কমাতে পারেন। এই চায়ের স্বাদ খুবই ভালো। মেয়েদের পিরিয়ড সংক্রান্ত ব্যথা নিরাময়ে উপকারী। এতে আরো আছে ভিটামিন সি, যা কিনা ঠাণ্ডা-সর্দি সারাই করে। আবার ত্বক ও চুলের যত্ন নেয়। হজমের বিভিন্ন সমস্যা দূর করে। মানসিক চাপ দূরে রাখে। সেইসঙ্গে মূত্রনালীর সংক্রমণ প্রতিরোধ করে।

চন্দ্রমল্লিকা:– আমাদের দেশে পরিচিত ফুল। এতে আছে বি ক্যারোটিন, যা কিনা যকৃতে পৌঁছে ভিটামিন এ-তে পরিণত হয়। পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। চেহারায় বয়সের ভাব আসতে দেয় না। শরীরকে শীতল করে। জ্বর ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়।

অপরাজিতা:– এই ফুলের চা নীল চা নামে পরিচিত। ফ্যাটি লিভার রোগ ও ওজন বাড়ানোর জন্য দায়ী। নীল চা ফ্যাটি লিভারের রোগ থেকে রক্ষা করে ও পেটের মেদ ঝরাতে সহায়তা করে।

ল্যাভেন্ডার ফুলের চা:– এটি খুব একটা পরিচিত ফুল নয়, কিন্তু খুঁজলে এটিও পাওয়া যায়। এই ফুলের চা খুব ভালো হজমের উপযোগী, এছাড়া খিঁচুনি, ওজন কমানোয় গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা আছে এর।

জুঁই:–আরেকটি পরিচিত ফুল। এটা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। ডায়াবেটিস দূরে রাখে। হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি হ্রাস করে। প্রাকৃতিকভাবেই পেশির ব্যথা নিরাময়ের গুণ রয়েছে এর।