ফুটবল তারকা পল পগবা ফরাসি জাতীয় দল ছাড়ার ভুয়ো খবর ছরাচ্ছে কিছু সংবাদ মাধ্যম

ফুটবল তারকা পল পগবা ফরাসি জাতীয় দল ছাড়ার ভুয়ো খবর ছরাচ্ছে কিছু সংবাদ মাধ্যম

আজবাংলা       ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড মিডফিল্ডার পল পগবা তার আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নেওয়ার খবরকে গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। ইংলিশ সংবাদপত্র দ্য সান দাবি করেছিল, ফরাসি সরকারের ইসলামবিদ্বেষী মন্তব্যের কারণে ফ্রান্সের জাতীয় দলকে বিদায় বলে দিয়েছেন বিশ্বকাপ জয়ী মিডফিল্ডার।

এই ‘ভুয়ো খবর’ প্রকাশিত হওয়ায় সংবাদপত্রটির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন ক্ষুব্ধ পগবা।ইসলাম সম্পর্কে ফরাসী প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর মন্তব্যের প্রতিবাদে তিনি ফ্রান্সের হয়ে আর আন্তর্জাতিক ফুটবল খেলবেন না- এমন একটি খবর অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ার পর তিনি এভাবেই তার ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার কথা জানান। 

ইংলিশ ফুটবল ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ২৭ বছর বয়সী এই ফুটবলার এই খবরটিকে "একেবারেই ভুয়ো" খবর বলে উল্লেখ করেছেন।ফ্রান্সের হয়ে ২০১৮ সালে রাশিয়ায় বিশ্বকাপ জয় করেছেন পগবা। তিনি একজন মুসলিম। জাতীয় দলের হয়ে মোট ৭২টি ম্যাচ খেলে তিনি ১০টি গোল করেছেন। ধারণা করা হচ্ছে, ২০২২ সালে কাতারে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপেও ফরাসী দলে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন। 

ফ্রান্সে খৃস্টান ধর্মাবলম্বীদের সংখ্যার পরেই মুসলিমদের সংখ্যা। ধারণা করা হয় যে দেশটিতে প্রায় ৬০ লাখ মুসলিম বসবাস করেন।বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে 'আন্তর্জাতিক ফুটবল ছাড়লেন পগবা', 'ফ্রান্সের জার্সিতে আর খেলবেন না পগবা'- এধরনের শিরোনামে খবরটি প্রকাশিত হয়। একই সাথে সোশাল মিডিয়াতেও এই খবর ভাইরাল হয়েছে।

ফরাসী দল ছাড়ার ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়ার পর পগবা লিখেছেন, "কিছু কিছু সংবাদ মাধ্যম আছে, দুর্ভাগ্যজনকভাবে, যারা সংবাদ তৈরির সময় দায়িত্বশীল থাকে না। তারা সাংবাদিকতার স্বাধীনতার অপব্যবহার করে।" 

"তারা যে খবরটি লিখে বা তৈরি করে তার সত্যতা যাচাই করে দেখে না। এই খবরটি মানুষের এবং আমার জীবনের ওপর কী ধরনের প্রভাব ফেলতে পারে সেটা না ভেবেই তারা গুজব ছড়িয়ে দেয়,পল পগবা মুসলিম হিসেবে জন্মগ্রহণ করেন নি। তবে তার মা ছিলেন মুসলিম। ২০১৯ সালে পগবা জানান যে তিনি মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।