বহু চেষ্টা করেও শাহরুখ খানের জন্য মরক্কোর ভিসা পাননি গুলশন গ্রোভার !

বহু চেষ্টা করেও  শাহরুখ খানের জন্য মরক্কোর ভিসা পাননি গুলশন গ্রোভার !

আজবাংলা     বহু চেষ্টা করেও সে দিন মরক্কোর ভিসা পাননি বলিউডের ব্যাড ম্যান গুলশন গ্রোভার। তাঁর ভিসা না পাওয়ার কারণ না কি ছিলেন কিং খান স্বয়ং। কিন্তু কেন? কী কারণে মরক্কোর ভিসা থেকে বঞ্চিত করা হয়েছিল গুলশন গ্রোভারকে? সম্প্রতি 'ইন্ডিয়াজ বেস্ট ডান্সার'-এর একটি এপিসোডে এসে এমনই এক অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন গুলশন গ্রোভার।

যাত্রার মাঝে তখন মরক্কো বিমানবন্দরে অপেক্ষা করছিলেন গুলশন। আরেকটি ফ্লাইট ধরতে তখনও অনেকটা সময় বাকি ছিল। আর সেই ফাঁকে শহরের আশপাশটা ঘুরে দেখতে চেয়েছিলেন তিনি। পরিকল্পনামাফিক বিমানবন্দরে থাকা এক মহিলা অফিসারকে নিজের টিকিট ও সমস্ত নথিপত্র দেখান গুলশন।

আবেদন করেন, তিনি যদি একটি ভিসা পারমিট করেন। এ দিকে গুলশনকে দেখা মাত্রই বড় অদ্ভুত উত্তর দিয়ে বসেন ওই মহিলা। বলেন, গুলশনকে পছন্দ করেন না তিনি। কারণ, তিনি শাহরুখ খানকে খুব মারধর করেছেন। প্রথমবার এমন উত্তর শুনে খানিকটা হকচকিয়ে যান গুলশন।

পরে অবশ্য তিনি ওই মহিলা অফিসারকে বোঝানোর চেষ্টা করেন যে, তিনি শাহরুখের বন্ধু। ওটা শুধুমাত্র সিনেমার একটি দৃশ্য ছিল মাত্র। বাস্তবে তাঁরা কোনও দিনও মারপিট করেননি।ইন্ডিয়াজ বেস্ট ডান্সার'-এ এসে শেয়ার করা গুলশনের এই গল্প ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

মরক্কোয় বলিউড সিনেমা ও গান যে কতটা জনপ্রিয়, সে কথাও এই রিয়্যালিটি শো-তে তুলে ধরেন গুলশন।'ডুপ্লিকেট', 'ইয়েস বস', 'রাম জানে'-র মতো বেশ কয়েকটি সিনেমায় এক সঙ্গে দেখা গেছিল শাহরুখ ও গুলশনকে। বলা বাহুল্য, সেই সব সিনেমার দৃশ্য দেখেই হয়তো ওই মহিলা অফিসারের মনে এমন ধারণা তৈরি হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, নিজের স্টারডম নিয়ে এর আগে হিন্দুস্থান টাইমসকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে শাহরুখ খান বলেছিলেন, তিনি আন্তর্জাতিক সিনেমার জন্য যথাযথ নন। তাঁর কথায়, তিনি সব সময় ভারতীয় সিনেমার জন্য ভালো কিছু করতে চেয়েছেন। তবে তা শুধু অভিনেতা হিসেবে নয়।

তা ছাড়া যদি কোনও দিন কোনও ইন্টারন্যাশনাল প্রোজেক্টে তিনি কাজ করেন, তা হলে সব সময় মাথায় রাখবেন যে তিনি ভারতের হয়েই বিশ্বে প্রতিনিধিত্ব করতে চলেছেন। তাই এ ক্ষেত্রে শুধু শাহরুখের জন্য নয়, ভারতের জন্যও সিনেমাটির একটি গুরুত্ব থাকতে হবে। কারণ এই দেশই তাঁকে স্টার বানিয়েছে। কাঙ্ক্ষিত জনপ্রিয়তা দিয়েছে।