নখকুনির সমস্যায় হয়রান? দেখে নিন উপায়

নখকুনির সমস্যায় হয়রান? দেখে নিন উপায়

আজবাংলা   নখের কোণা কাটার সময়ও বেশি কেটে গেলে ব্যথা হয়। তাছাড়া নখের আশেপাশের ত্বকে এক ধরনের ব্যকটেরিয়া সৃষ্টি হয়। যা নখের কোণায় প্রচন্ড ব্যথার সৃষ্টি করে। তাই আসুন জেনে নিই এমন সমস্যায় হলে আমরা কী কী করতে পারি।

১. কোনো কারণে নখের ত্বকের আশেপাশে ক্ষত তৈরি হলে কিংবা কেটা গেলে সে স্থান পুরোপুরি শুকনো রাখুন। যন্ত্রণা থেকে বাঁচতে চাইলে কোনোভাবেই ওই স্থানে জল লাগতে দিবেন না।

২. এক ধরনের ফাঙ্গাসের কারণে নখকুনি হয় বা নখের কোনায় ব্যথা করে। তাই এ সমস্যা দেখা দিলে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বা অয়েন্টমেন্ট ব্যবহার করতে পারেন।

৩. কাপড় কাঁচার কারণে নারীদের এই সমস্যা বেশি হয়। এক্ষেত্রে অ্যান্টি ফাঙ্গাল মলম ব্যবহার করা যেতে পারে। প্রয়োজনে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন।

৪. নখকুনি দেখা দিলে এমন জুতা পড়ুন যাতে পায়ে জল বা কাদা না লাগে।

৫. এমন টাইট জুতা পড়বেন না যাতে নখকুনির ব্যথা আরো বেড়ে যায়।

৬. এত সামান্য ব্যথায় অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার কথা চিন্তাও করবেন না। প্রয়োজনে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।