শ্যালিকাকে ধর্ষণের চেষ্টা জামাইবাবুর, বাধা পেয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুন

শ্যালিকাকে ধর্ষণের চেষ্টা জামাইবাবুর, বাধা পেয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুন

গভীর রাতে মত্ত অবস্থায় শ্বশুর বাড়ি ঢুকে শ্যালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ জামাইবাবুর বিরুদ্ধে। ধর্ষণে বাধা দেওয়ায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন করা হল শ্যালিকাকে। মুর্শিদাবাদ জেলার সামসেরগঞ্জ থানার দোগাছি গ্রাম পঞ্চায়েতের লস্করপুর গ্রামের বুধবার রাতের এই ঘটনার জেরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেন গ্রামবাসীরা। পুলিশ জানিয়েছে, ওই তরুণী বুধবার রাতে যখন ঘুমিয়ে ছিলেন, তখন জামাইবাবু জাকির হোসেন তাঁর ঘরে ঢোকে। জোর করে ধর্ষণের চেষ্টা করলে বাধা দিয়েছিল তিনি। অভিযোগ, মত্ত অবস্থায় বাধা পেয়ে ক্ষিপ্ত জাকির ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে তাঁকে।

এর জেরেই মৃত্যু হয় তাঁর। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত। বুধবার রাতে চিৎকার-চেঁচামেচির পর রক্তাক্ত অবস্থায় তরুণীর মৃতদেহ দেখতে পান পরিবারের সদস্যরা। খবর দেওয়া হয় সামশেরগঞ্জ থানায়।

পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। জঙ্গিপুর জেলা পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।পলাতক জাকির হোসেন ওরফে বিশুকে খোঁজ করা হচ্ছে বলে জানানে হয়েছে পুলিশের তরফে।