ডিজিটাল ভারত কর্মসূচিতে বাংলার গ্রাম পৌঁছে দ্রুত গতির ইন্টারনেট পরিষেবা

ডিজিটাল ভারত কর্মসূচিতে বাংলার গ্রাম পৌঁছে দ্রুত গতির ইন্টারনেট পরিষেবা

অপটিক্যাল ফাইবার মারফত দেশের সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েতে দ্রুত গতির ইন্টারনেট পরিষেবা পৌঁছে দিতে শুরু হয়েছিল ভারতনেট প্রকল্প। এর আওতায় পশ্চিমবঙ্গে প্রথম দফায় লক্ষ্যের ৮৫ শতাংশেরও বেশি অংশে ফাইবার সংযোগের কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে বলে দাবি করলেন প্রকল্পের মূল দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা ভারত ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্কের (বিবিএনএল) সিজিএম তথা পশ্চিমবঙ্গে সংস্থার প্রধান কর্তা অসীম কুমার সিন্হা।

তাঁর আশা, বাকি এলাকার কাজ মার্চের মধ্যেই সম্পূর্ণ হয়ে যাবে। অসীমবাবু জানান, প্রথম পর্যায়ে গ্রাম পঞ্চায়েত ও ব্লক মিলিয়ে রাজ্যে ২৯০১টি কেন্দ্রে ওই পরিষেবা পৌঁছনোর কথা। ইতিমধ্যেই রাজ্যের ২৪৮৫ টি কেন্দ্রে ফাইবার যোগ সম্পূর্ণ হয়েছে। সংযোগ পেয়েছে ২২৩৯টি গ্রাম পঞ্চায়েত। আর ব্লকের সংখ্যা ২৪৬।

গ্রাম পঞ্চায়েত ও ব্লক মিলিয়ে ২৯০১টি কেন্দ্রে অপটিক্যাল ফাইবার পেতে নেট পরিষেবা পৌঁছনোর কথা। ফলে নেট মারফত শিক্ষা, স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গেই বৈদ্যুতিন মাধ্যমে সরকারি কাজকর্মেও গতি আসবে। অপটিক্যাল ফাইবার মারফত দ্রুত গতির নেট সংযোগ দিতে গত ২০১১ সালে 'ন্যাশনাল অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক' প্রকল্পটির ঘোষণা হয়েছিল।

২০১৫ সালে তা-ই হয় ভারতনেট। লক্ষ্য, দেশের ২.৫০ লক্ষ গ্রাম পঞ্চায়েতে ১০০ এমবিপিএস গতির ইন্টারনেট পরিষেবা পৌঁছনো। সে জন্য অপটিক্যাল ফাইবার-সহ পরিকাঠামো গড়তে তৈরি হয় বিবিএনএল। সেই পরিকাঠামোর ভিত্তিতে নেট পরিষেবা দিচ্ছে বিএসএনএল। পরিষেবা থেকে হওয়া আয় ভাগ হচ্ছে বিএসএনএল এবং বিবিএনএলের মধ্যে।

ডিজিটাল ভারত তৈরির কর্মসূচিতে প্রকল্পটির বিশেষ গুরুত্বের কথা বলেছে মোদী সরকার। দ্বিতীয় পর্যায়ে রাজ্যে ৫৬৭টি গ্রাম পঞ্চায়েত এবং ৫০টি ব্লকে ভারতনেট রূপায়িত হওয়ার কথা। অসীমবাবু জানান, সে ক্ষেত্রে যৌথ উদ্যোগের মডেল অনুসরণ করা হবে। অর্থাত্‍, বেসরকারি টেলিকম সংস্থা নেট পরিষেবা দেওয়ার জন্য প্রকল্পের অংশীদার হতে পারে।