পালং শাকের প্রতি অনীহা? করে দেখুন পালং মাংস কারি

পালং শাকের প্রতি অনীহা? করে দেখুন পালং মাংস কারি

আজবাংলা   শাক-সবজির মধ্যে পালং শাক খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ। সুলভে পাওয়া সুস্বাদু এই শাকের রয়েছে নানা ধরণের কঠিন রোগ সারানোর কার্যকরী গুণ। এটি ভাজা কিংবা রান্না করে খাওয়া যায়।

নানারকম অসুখ-বিসুখ থেকে দূরে থাকতে খাবারের তালিকায় রাখতে পারেন এই সবুজ শাকটি। এবারে এই বিশেষ শাকটির সাথে যদি মাংসের কমবো হয়, তাহলে কেমন হয়? একইসাথে যেমন পুষ্টি তেমনই সুস্বাদু। আজকের রেসিপিটি হল পালং মটন কারি।

উপকরণ-  ৩ টেবিল চামচ ঘি, বড় খোসা ছড়ানো পেয়াঁজ, সুক্ষ্মভাবে কুচি করে কাটা, ১ চা চামচ জিরা গুঁড়া, ১ চা চামচ ধনে গুঁড়া, ১ চা চামচ লঙ্কার গুঁড়া, রসুনের ৫টি খোসা ছড়ানো কোয়া, কুচি করে কাটা, পরিমাণগত নুন।

১ কেজি মটন /মুরগীর মাংস (২.৫ সেমি/১ ইন্চি পরিমাণের কিউব আকারে কাটা, ৫০০ গ্রাম/১ পাউন্ড ভালোভাবে ধোয়া ও কুচি করে কাটা শাক, ৬ টি মধ্যম টমেটো ফুটন্ত জলেতে পরিষ্কার করে ও টুকরা করা।

প্রণালী-  একটি বড় ভারী সসপ্যানে নিম্ন মধ্যম তাপে ঘি গলিয়ে নিয়ে তাতে পেঁয়াজ অনবরত নেড়ে নেড়ে বাদামী করুন। এতে রসুন দিয়ে আবারো কয়েক মিনিট ভাজুন। বাদবাকি মশলা ও নুন মেশান ও দুই মিনিট ধরে ভাজুন। প্যানের ভেতরের গোড়া ভালো করে আঁচড়িয়ে দিন।

যাতে তলায় কোনো মশলা আটকে না যায়। শাক এবং টমাটো দিন, প্যান ঢাকুন,এবং ধীরে ধীরে মাংস সেদ্ধ ও নরম হতে দিন এবং শাক এবং টমেটো কমে পেস্ট হোক মাঝে মাঝে প্যান পরখ করুন এবং উপাদানগুলি নেড়ে দিন।

যদি মাংসের রস শুকিয়ে যাচ্ছে মনে হয় তবে কয়েক টেবিল টামচ জল মিশান। তৈরি ডিশ একটু ভারী ঝোল মতো হবে। প্যানের সামগ্রী একটি ওভেন প্রুফ কিন্ত পরিবেশন যোগ্য পাত্রে সরিয়ে নিন। গরম গরম পরিবেশন করুন।