এবারে ক্লিক করলেই পেয়ে যাবেন স্পেশাল মাংসের রেসিপি

এবারে ক্লিক করলেই পেয়ে যাবেন স্পেশাল মাংসের রেসিপি

আজবাংলা  গরম গরম ভাত কিংবা পোলাওয়ের সঙ্গে ঝাল খাসির মাংসের তরকারি হলে কেমন হয়? আজ রাতেই রান্না করে ফেলতে পারেন এই বিশেষ রান্নাটি। এটি আদতে সাধারন ও পুরনো রান্না হলেও, এটিকে নতুনভাবে প্রস্তুত করা হয়েছে।

এইটুকু বলতে পারি এটি খেতে খুবই ভালো লাগবে। এটি খুব বেশি স্পাইসি নয়। আসুন দেখে নিন এই বিশেষ রেসিপিটি- 

উপকরনঃ মশলার উপকরণ-  ১. 4-6 টি লবঙ্গ, ২. 1 ইঞ্চি লম্বা দারুচিনি, ৩. 6-8টি গোটা গোলমরিচ, ৪. 3-4টি ছোট এলাচ, ৫. 2টি বড়ো এলাচ, ৬. 10-12টি কাজুবাদাম, ৭. 1 কাপ লাল করে ভাজা পেঁয়াজ, ৮. 1 কাপ টোম্যাটো পেস্ট।

কারির উপকরণ-  ১. 3 টেবিলচামচ ঘি, ২. 3 টেবিলচামচ তেল, ৩. 1 কেজি খাসির মাংস, ৪. 4 টেবিলচামচ ভরা আদা-রসুন-কাঁচালঙ্কাবাটা, ৫. 1 কাপ দই ফেটিয়ে নিন 1 টেবিলচামচ ময়দাসহ, ৬. 2 টেবিলচামচ ধনেগুঁড়ো, ৭. 2 চাচামচ কাশ্মিরি লাল লঙ্কার গুঁড়ো


৮. ½ চাচামচ হলুদগুঁড়ো, ৯. ½ চাচামচ জিরেগুঁড়ো, ১০. স্বাদ অনুযায়ী নুন, ১১. 2 টেবিলচামচ উষ্ণ জলে ভিজিয়ে নিন 10-12 সুতো জ়াফরান, ১২. 2-3 ফোঁটা কেওড়ার জল।

প্রণালীঃ  সমস্ত গোটা মশলা আর কাজুবাদাম শুকনো খোলায় সেঁকুন বাদামি রং ধরা পর্যন্ত। তার পর ব্লেন্ডারে ভাজা পেঁয়াজ, সেঁকা মশলা আর এক টেবিলচামচ জল দিয়ে পুরোটা ভালো করে পিষে নিন। কারি তৈরির জন্য একটি প্রেশার কুকারে ঘি আর তেল দিয়ে গরম করুন।


এর মধ্যে মাটনের পিসগুলো দিয়ে 8-10 মিনিট ভাজুন। এবার মশলাবাটা, আদা-রসুন-কাঁচালঙ্কাবাটা, টোম্যাটো পেস্ট দিয়ে কষতে আরম্ভ করুন। পাঁচ মিনিট পর দই, ধনেগুঁড়ো, জিরেগুঁড়ো, লঙ্কাগুঁড়ো, হলুদগুঁড়ো আর নুন দিয়ে খুব ভালো করে কষে নিন। মিনিট পাঁচেক পর দু’ কাপ গরম জল দিয়ে কুকার বন্ধ করে দিন।

মাটন সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করতে হবে। তার পর নামিয়ে স্টিম বের করে কেওড়া জল আর জ়াফরানের জলটা দিন। পরিবেশনের সময় বাটিতে মাংস, ঝোল, গাজরের টুকরো, আলুর টুকরো, গোটা টোম্যাটো, ডিম সেদ্ধ, ধনেপাতাকুচি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।