ম্যাচ ফিক্সিং কাণ্ডে দুই ভারতীয় ক্রিকেটারকে নির্বাসনে পাঠাল আইসিসি

ম্যাচ ফিক্সিং কাণ্ডে দুই ভারতীয়  ক্রিকেটারকে নির্বাসনে পাঠাল আইসিসি

ম্যাচ ফিক্সিং কাণ্ডে নাম জড়াল ভারতের। ভারতীয় বুকিদের কাছে টাকা নিয়ে ম্যাচ ফিক্স করার অভিযোগে নির্বাসিত হলেন সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর দুই ক্রিকেটার। ৮ বছর সমস্ত ক্রিকেটীয় বিষয় থেকে দূরে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আমিরশাহীর আমির হায়াত (Amir Hayat) এবং আশফাক আহমেদকে (Ashfaq Ahmed)। বৃহস্পতিবার আইসিসির তরফে জানানো হয়েছে, আমিশাহীর পেসার হায়াত এবং ব্যাটসম্যান আশফাককে ফাইভ কাউন্টে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে।

যার শাস্তি হিসেবে তাঁদের ৮ বছরের জন্য ক্রিকেটীয় বিষয় থেকে দূরে থাকতে হবে। ঘটনার সূত্রপাত সেই ২০১৯ সালে। টি-২০ বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচে এই দুই ক্রিকেটার টাকা নিয়ে ফিক্সিং করেছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে। 'মিস্টার ওয়াই' নামের এক ভারতীয় বুকি দু'জনকেই চার হাজার মার্কিন ডলার ঘুষ দিয়েছিল বলে অভিযোগ। অভিযোগ ওঠার পরই তদন্ত কমিটি বসায় আইসিসি।

২০২০ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর দুই ক্রিকেটারকেই দোষী সাব্যস্ত করে আইসিসির কমিটি। তখন থেকেই তাঁদের সাসপেন্ড করে রাখা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার দুই ক্রিকেটারের মোট শাস্তির পরিমাণ জানানো হয়েছে। তাঁদের আট বছরের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে। যদিও দুই ক্রিকেটারের জন্য সামান্য স্বস্তির খবর হল, ২০২০ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর থেকেই তাঁদের এই নির্বাসন শুরু হয়েছে বলে ধরে নিচ্ছে ICC। 

ঘটনাচক্রে যে দুই ক্রিকেটারকে আইসিসি নির্বাসনে পাঠিয়েছে তাঁরা দুজনেই পাকিস্তানের বংশোদ্ভূত। আর পাক ক্রিকেটে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের ঘটনা একেবারেই নতুন নয়। আবার যাদের কাছ থেকে এঁরা ঘুষ নিয়েছিলেন তাঁরা আবার ভারতীয় বলে দাবি আইসিসির। সেদিক থেকে দেখতে গেল এই ফিক্সিং কাণ্ডে একইসঙ্গে এশিয়ার দুই শক্তিধর ক্রিকেট খেলিয়ে দেশের নাম জড়িয়ে গেল। যদিও কে এই ভারতীয় বুকি মিস্টার ওয়াই? সেটা এখনও জানা সম্ভব হয়নি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থা তাকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে।