পানিহাটিতে কাউন্সিলর হত্যার সাত দিনের মধ্যে আবার খুন

পানিহাটিতে কাউন্সিলর হত্যার সাত দিনের মধ্যে আবার খুন

অনুপম দত্ত খুনের সাত দিনের মাথায় আবার খুন পানিহাটি পুরসভা এলাকায়। ৭ নম্বর ওয়ার্ডের অন্তর্গত নয়াবস্তির মৌলানা সেলিম রোড থেকে এক ব্যক্তির রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল আগরপাড়ায়।ঘটনাচক্রে, গত রবিবার এই পানিহাটিতে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর অনুপমকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল।

তার সাত দিনের মধ্যে ঠিক পাশের ওয়ার্ডেই আরও একটি খুনের ঘটনায় আতঙ্ক আরও বাড়ল স্থানীয়দের মধ্যে।  শনিবার বিকেল ৫টা নাগাদ একটি ক্ষতবিক্ষত রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়। এর পরেই খড়দহ থানায় খবর দেন স্থানীয়েরা। মৃত ব্যক্তির নাম শেখ আরমান। তাঁর বয়স ৩৫। পুলিশ সূত্রে খবর, দিন ১৫ আগেই জেল থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন তিনি।

শরীরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন থাকায় পুলিশের অনুমান, আরমানকে ভোজালিকে দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে। আরমানের পরিবারের অভিযোগ, জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর থেকেই হুমকি ফোন পাচ্ছিলেন আরমান। এর পর শনিবার মৌলানা সেলিম রোডে তাঁকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করা হয়। ছানা নামে স্থানীয় এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ তুলেছেন আরমানের মাসি।

 পাশাপাশি দুই ওয়ার্ডে সাত দিনের ব্যবধানে কাউন্সিলর ও জেল খাটা আসামির খুনের ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে আগরপাড়া অঞ্চলে। এলাকায় ইতিমধ্যেই বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। আরমানের দেহ পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। পুলিশের বক্তব্য, ছানা নামে যে ব্যক্তির বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ উঠেছে, তাঁর খোঁজ চলছে।

ঠিক কী কারণে আরমানকে খুন করা হয়েছে আর কেনই বা তিনি হুমকি ফোন পাচ্ছিলেন (পরিবারের দাবি), তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ছাড়াও অনুপমের হত্যার সঙ্গে আরমান খুনের কোনও যোগসূত্র আছে কি না, তা-ও দেখা হচ্ছে বলে জানাচ্ছে পুলিশ সূত্র।