শিলিগুড়ি তে বাজারে চোখে পড়ছে মাস্ক না পড়ার প্রবণতা

শিলিগুড়ি তে বাজারে চোখে পড়ছে মাস্ক না পড়ার প্রবণতা

শিলিগুড়ি:   "শিলিগুড়ি Siliguri শহরে আবারো দেখা দিচ্ছে প্রতিনিয়ত সচেতনতার অভাব, বাজারে চোখে পড়ছে মাস্ক না পড়ার প্রবণতা, যার জেরে 'গিভ লাইফ সোসাইটি' স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের তরফে  মানুষকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে আজ আবারো আর একবার শিলিগুড়ির মহাবৃষ্ঠান বাজার এর ভেতরে ঢাক বাজিয়ে মা দুর্গা কে সাথে নিয়ে ঘুরে ঘুরে মাস্ক বিতরণ এবং সচেতনতা মূলক মাইকিং এর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়| যেখানে উপস্থিত ছিলো সমস্ত স্কুল পড়ুয়ারা|শহর শিলিগুড়ি তে সচেতনতার অভাব দেখে আজ মহাপঞ্চমীতে  ভরা বাজারে মর্তে নামলেন স্বয়ং দেবী দূর্গা|

সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়  ঢাক বাজানোর পেছনে এবং স্বয়ং মা দূর্গা কে মর্তে নামানোর পিছনে উদ্দেশ্য এই যে পুজো চলেই এসেছে, আজ মহাপঞ্চমীতেও শহর শিলিগুড়ির মহাবৃষ্ঠান বাজারে  উপচে পড়ছে মানুষ এর ঢল| লক্ষ করা যাচ্ছে সচেতনতার অভাব| করোনা সম্পূর্ণ রূপে না যাওয়ায় আজকের এই উদ্যোগ বলে জানানো হয়|

সংগঠন এর পক্ষ থেকে আরও জানানো হয় যে এই ভাবে যদি পঞ্চমী তে সামান্য বাজারে এত ভিড় লক্ষ করা যায় তাহলে বাকি পুজোর দিন গুলো মণ্ডপে কি লক্ষ করা যাবে  তা বড়ই চিন্তার বিষয়??? কারণ বাজারেই এতো তা অসচেতনতা লক্ষ করা যাচ্ছে যা এক বিরাট বড় প্রশ্ন তৈরী করছে পুজোর দিন গুলো নিয়ে|

তারা সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন জানিয়েছে যে দয়া করে যাতে মাস্ক তা পড়া হয়, এবং সঠিক নিয়ম পালন করা হয়, ভ্যাকসিনেশন হয়ে যাওয়া মানেই এই নয় যে করুনা হবে না| তারা খুবই দুঃখ ও প্রকাশ করে সাধারণ মানুষ দের কাছে কারণ যখন তারা সচেতনতা মূলক বার্তা নিয়ে চলছিল তখন তাদের সাথে সাধারণ মানুষ নানা ধরনের খারাপ ব্যবহার ও করে|

আরও তারা জানায় যে বাজারে প্রশাসনের অভাব দেখা যায় এবং কোনো রকম কোবিদ বিধি কে মানও করার মতো নজরদারি বা কোনো সেসকল কিছু ব্যবস্থা করা হয় নি বলে জানায় তারা| সামান্য মাইকিং এর ব্যবস্থা ছাড়া আর কিছুই লক্ষ করা যায়নি প্রশাসনের পক্ষ থেকে তেমন, এমন তাই তাদের অভিযোগ|সংগঠন এর পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষের কাছে হাত জোড় করে অনুরোধ করা হয় যাতে সঠিক নিয়ম বিধি মেনে পুজো উপভোগ করেন, এবং প্রশাসনের কাছে এই যুব সমাজ আবেদন রাখেন যে এই সকল বাজার এবং মণ্ডপ গুলো তে যাতে প্রশাসন আরেকটু বেশি নজরদারি রাখেন|