বিশ্বের উচ্চতম রেল সেতু হিসাবে যুক্ত হতে চলেছে ভারতের নাম ।

বিশ্বের উচ্চতম রেল সেতু হিসাবে যুক্ত হতে চলেছে ভারতের নাম ।

আজবাংলা    দেশবিদেশ থেকে পর্যটকেরা ভ্রমন করতে আসেন আমাদের দেশে। ভারতের খ্যাতি পৃথিবীর নানান প্রান্তরে ছড়িয়ে আছে। মুলত আমাদের দেশ প্রাচীন স্থাপত্য, ঐতিহাসিক কালচার ও ভারতীয় সংস্কৃতির জন্য জানা যায়। আর কিছুদিন পর থেকে বিশ্বের দরবারে মানুষ সবথেকে উচ্চতম রেল সেতুর জন্য ভারতের নাম জানবে। এই প্রসঙ্গে সরকারি আধিকারিকেরা বলেছেন, এখন অবধি পৃথিবীর উচ্চতম সেতুর উচ্চতা যা আছে, তার থেকেও উঁচু হতে চলেছ। শেষ এক বছরে এই সেতুর কাজে গতি এসেছে।

জম্মু ও কাশ্মীরের চেনাব নদীর উপর দিয়ে উচ্চতম রেল সেতু তৈরির কাজ শুরু হতে চলেছে। সূত্র অনুসারে জানা গিয়েছে, ২০২১ সালের মধ্যে সেতু তৈরির কাজ শুরু হবে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ২০২১ সালের মধ্যে সেতুর কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে। আর ২০২২ সালের মধ্যে থেকে রেল চলাচলের কাজ শুরু হয়ে যাবে। রবিবার রেল মন্ত্রকের পক্ষ জানানো হয়েছে, ভূমি থেকে সেতুর উচ্চতা দাঁড়িয়েছে ৩৫৯ মিটার। আর প্রস্থ্যে দৈর্ঘ্য ৪৬৭ মিটার।

রেলের তরফ থেকে বলা হয়েছে ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে কাশ্মীর এই সেতুর দ্বারা যুক্ত হতে চলেছে। আপাতত বানিহাল কাজিগন্দ সেকশন, উধমপুর কাটরা সেকশন, ও কাজিগন্দ রারাম্মুলা সেকশনে সব কাজ হয়ে গিয়েছে। আর বাকি যা কাজ আছে তা ২০২২ সালের মধ্যে হয়ে যাবে বলে জানা যাচ্ছে। এখনও অবধি ১২৬ কিলোমিটার টানেলের কাজ শেষ হয়েছে, ১৭৪ কিলোমিটার টানেলের ‌মধ্যে।প্রধানমন্ত্রী ২০১৫ সালে কাশ্মীরের উন্নতিতে যে প্যাকেজের ঘোষণা করেছিলেন সেই প্যাকেজের অর্থই খরচ করা হয়েছে এই প্রকল্পের।সেই সময় প্রধানমন্ত্রী কাশ্মীর আর্থ ও সামাজিক উন্নতি করতে মোট ৮০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজের ঘোষণা করেছিল।