শিক্ষার পর দমকলে অনিয়ম, স্থগিতাদেশের মেয়াদ বাড়াল হাই কোর্ট

শিক্ষার পর দমকলে অনিয়ম, স্থগিতাদেশের মেয়াদ বাড়াল হাই কোর্ট

স্কুলে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে মামলা চলছে কলকাতা হাই কোর্টে। তার মধ্যেই এসেছে নতুন অভিযোগ। দমকল বিভাগে অপারেটর নিয়োগ নিয়ে সেই মামলায় স্থগিতাদেশের মেয়াদ বাড়ল আরও ১৫ দিন।  সোমবার বিচারপতি হরিশ টন্ডন এবং বিচারপতি শম্পা দত্তপালের ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি) নির্দিষ্ট সময়ে হলফনামা না জমা দিতে পারার কারণেই সংশ্লিষ্ট মামলায় স্থগিতাদেশ আরও বাড়ানো হল।

আগামী সোমবার মামলাটির পরের শুনানি রয়েছে উচ্চ আদালতে। এই মামলায় পিএসসি-র আইনজীবী প্রদীপ রায় আদালতকে জানান, গত শুনানিতে এই নিয়োগ মামলার উপর স্থগিতাদেশ দেওয়ায় পিএসসি-র প্যানেল থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ১০ বছর ধরে তিনি পিএসসি’র হয়ে মামলা করে আসছেন।  প্রসঙ্গত, দমকলের অপারেটর পদের জন্য দেড় হাজার কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করে পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি)।

২০১৮ সালে লিখিত পরীক্ষা হয়। পরে নেওয়া হয় মৌখিক পরীক্ষা। এই নিয়োগে অনিয়ম হয়েছে— এই অভিযোগ তুলে প্রথমে রাজ্য ট্রাইবুনালে মামলা করেন বাসুদেব ঘোষ-সহ কয়েক জন চাকরিপ্রার্থী। পরে মামলাটি উচ্চ আদালতে আসে।  মামলাকারীদের আইনজীবী সুবীর সান্যাল আদালতে জানিয়েছিলেন, এই নিয়োগে একাধিক অনিয়ম হয়েছে।

অসংরক্ষিত (জেনারেল) প্রার্থীকে চাকরি দেওয়ার জন্য সংরক্ষণের তালিকায় নাম ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে। কয়েকটি প্রশ্নে ভুল ছিল যা নিয়ে সমস্যা দেখা দিয়েছিল। তার সমাধান না করেই নিয়োগ প্রক্রিয়া চালিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তা ছাড়া, অনেক প্রার্থী একই নম্বর পেয়েছেন। সে ক্ষেত্রে নিজেদের পছন্দের প্রার্থীকে মৌখিক পরীক্ষায় বেশি নম্বর দিয়ে চাকরির সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। যদিও এই সমস্ত অভিযোগ মানতে চায়নি রাজ্য।