১১০ কৃষককে গলা কেটে খুন করল ইসলামিক জঙ্গি বোকো হারাম

১১০ কৃষককে গলা কেটে খুন করল ইসলামিক জঙ্গি বোকো হারাম

নৃশংসতার শিকার কয়েকশো গরীব সাধারণ মানুষ। সুদূর নাইজেরিয়ায় অন্তত ১১০ জন চাষী এবং জেলেদের নির্মমভাবে গলার নলি কেটে শিরচ্ছেদ করল ইসলামিক জঙ্গিরা। ভয়াবহ এই হত্যালীলার ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার নাইজেরিয়ার বোর্নো রাজ্যের কোশোবে গ্রামে।

রবিবার একটি বিবৃতি দিয়ে ঘটনার কথা জানিয়েছেন রাষ্ট্রসংঘের কো-অর্ডিনেটর এডওয়ার্ড কালোন। বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, 'অন্তত ১১০ জন চাষীকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। এই হামলায় আরও অনেকে জখম হয়েছেন। এ বছর নিরপরাধ সাধারণ মানুষের উপর এটাই সবচেয়ে ভয়ংকর হামলা।

এই নৃশংস হামলা যারা করেছে, তাদের যথাযোগ্য বিচারের আবেদন জানাচ্ছি।' জানা গিয়েছে, গত শনিবার নাইজেরিয়ার বোর্নো রাজ্যের কোশোবে গ্রামের একটি ধানখেতে এই নৃশংস ঘটনাটি ঘটেছে। এই ঘটনায় রবিবার জাবারমারি গ্রামে মৃতদের শেষকৃত্যে হাজির ছিলেন বর্নোর গভর্নর বাবাগানান উমারা জুলুম।

ওই গ্রামেই শনিবারের হামলায় ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। উদ্ধারকাজ শেষ হওয়ার পর মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আরও জানা গিয়েছে, হামলাকারী ইসলামিক জঙ্গিরা কৃষকদের বেঁধে একের পর এক গলার নলি কেটে হত্যা করছিলো।

শুধু তাই নয়, গত মাসে ইসলামিকজঙ্গি বোকো হারাম মাইদুগুড়ির কাছে চাষের জমিতে কর্মরত অবস্থায় ২২ জন কৃষককে হত্যা করেছিল। জিহাদীদের সঙ্গে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৩৬,০০০ মানুষ নিহত হয়েছেন। যা ২০০৯ সাল থেকে প্রায় দুই মিলিয়ন মানুষকে বাড়ি ছেড়ে পালাতে বাধ্য করেছে।