জিও-র অবাক করা অফার! এই প্ল্যানটি রিচার্জ করলে বিনামূল্যে জিওফোন

জিও-র অবাক করা অফার! এই প্ল্যানটি রিচার্জ করলে বিনামূল্যে জিওফোন

স্মার্টফোন আজও অনেকের কাছে অধরা। তাই তাঁরা ফিচার ফোন ব্যবহার করেন। বেশ কিছু বছর আগে রিলায়েন্স জিও একটি ৪জি ফিচার ফোন নিয়ে হাজির হয়েছিল, যার নাম জিওফোন। তারপর কেটে গিয়েছে অনেকটা সময়। টুজি বা থ্রিজি ফিচার ফোন ব্যবহারকারীদের ৪জি-তে কনভার্ট করতে সস্তার স্মার্টফোনও নিয়ে এসেছে রিলায়েন্স জিও।

কিন্তু রিলায়েন্স জিও-র (Reliance Jio) সেই ফিচার ফোন অর্থাত্‍ জিওফোনের (JioPhone) চাহিদা আজও ঊর্ধ্বগগনে। এটি এমনই একটি ফিচার ফোন, যা আপনি ব্রাউজ়ও করতে পারবেন। এমনিতেই জিওফোন খুব সস্তা। কিন্তু তাতে কী! এবার সম্পূর্ণ বিনামূল্যে গ্রাহকদের জিওফোন অফার করতে চলেছে মুকেশ আম্বানির টেলিকম সংস্থাটি। তবে হ্যাঁ, ফ্রি-তে জিওফোন উপলব্ধ করতে আপনাকে কিছু শর্তাবলী অতি অবশ্যই মানতে হবে। করতে হবে একটি রিচার্জ, আর তাতেই আপনি ফ্রি-তে একটা জিওফোন পেয়ে যাবেন।

আর সেই প্ল্যানটি হল, ১,৪৯৯ টাকার জিওফোন প্ল্যান। এই প্যাকটি আপনি যদি রিচার্জ করেন, তাহলে পেয়ে যাবেন ১ বছরের বৈধতা। ফিচার ফোন এখনও পর্যন্ত যাঁদের কাছে পৌঁছয়নি, তাঁদের জন্য এর থেকে ভাল প্ল্যান আর কী-ই বা হতে পারে। ১,৪৯৯ টাকার প্ল্যানে কী সুবিধা রয়েছে রিলায়েন্স জিও কেবল মাত্র জিওফোন ব্যবহারকারীদের জন্যই অফার করে এই ১,৪৯৯ টাকার প্রিপেড প্যাকটি। এই প্ল্যানের সাহায্যে আপনি দেশের যে কোনও প্রান্তে, যে কোনও নেটওয়ার্কে আনলিমিটেড ভয়েস কলিং করতে পারবে।

সর্বসাকুল্যে এই রিচার্জ প্যাকে আপনাকে দেওয়া হবে মোট ২৪জিবি ডেটা। প্ল্যানটির বৈধতা ১ বছর, যা এক কথায় বিরাট। শুধু তাই নয়। এই প্ল্যানে আবার আপনি পেয়ে যাবেন সমস্ত জিও অ্যাপ সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ব্যবহার করার সুযোগ। আর এখন এই প্ল্যানে আপনাকে একটা জিওফোন-ও অফার করা হবে। তাহলে একবার ভেবে দেখুন, একটা রিচার্জ প্ল্যানে ১ বছরের ভ্যালিডিটি, আনলিমিটেড কলিং, ২৪জিবি ডেটা এবং সেই সঙ্গে পেয়ে যাচ্ছেন একটা ফিচার ফোন, ভাবা যায়! জিওফোনে কী কী সুবিধা রয়েছে জিওফোনে রয়েছে একটি ২.৪ ইঞ্চির কিউভিজিএ ডিসপ্লে।

খুবই কমপ্যাক্ট ডিজ়াইনের এই ফোনটি যেমন ছোট, তেমনই আবার বেশ হাল্কাও। এই ফোনে রয়েছে হেডফোন জ্যাক, রয়েছে একটি এসডি কার্ড স্লটও। অন্যান্য সব ফিচার ফোনের মতোই জিওফোনেও রয়েছে আলফানিউমেরিক কিপ্যাড। এছাড়া টর্চ লাইট থেকে শুরু করে ক্যামেরা, মাইক্রোফোন, স্পিকার, কল হিস্ট্রি-সহ কন্ট্যাক্টস ইত্যাদির সব ফিচার্সই দেওয়া হয়েছে ফোনটিতে।

রয়েছে একটি ১৫০০এমএএইচ ব্যাটারিও। রিলায়েন্স জিও-র এই ফিচার ফোনটিতে যে ব্যাটারি রয়েছে, তা ৯ ঘণ্টা পর্যন্ত টকটাইম দিতে পারে। রয়েছে একটি ডেডিকেটেড মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট, যা ১২৮জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ সাপোর্ট করবে। ফোনের পিছনে রয়েছে একটি ০.৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সামনেও একটি ক্যামেরা থাকছে। বাংলা, হিন্দি এবং ইংরেজি-সহ মোট ১৮টি ভাষা সাপোর্ট করবে ফোনটি। সমস্ত জিও অ্যাপস যেমন, মাইজিও, জিওপে, জিওসিনেমা, জিওসাভন, জিওগেমস, জিওরেল, হোয়াটসঅ্যাপ, গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট, জিওভিডিয়োকল, সবই সাপোর্ট করবে ফোনটি।