দ্বিতীয় ডোজ না নেওয়ার প্রবণতার শীর্ষে কলকাতা

দ্বিতীয় ডোজ না নেওয়ার প্রবণতার শীর্ষে  কলকাতা

প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন নেওয়ার পর কেটে গিয়েছে চার মাস৷ তা সত্ত্বেও দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়নি (West Bengal Covid 19)৷ কলকাতা সহ রাজ্যের ৯টি জেলায় এই প্রবণতা ভাবাচ্ছে নবান্নকে৷ সেই জেলাগুলির তালিকা তৈরি করে এবার জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের তৎপর হতে নির্দেশ দিলেন মুখ্যসচিব৷

প্রথম ডোজ (Covid 19 Vaccination) নেওয়ার পর চার মাস কেটে গেলেও কেউ দ্বিতীয় ডোজের টিকা না নিলে সেটি ওভারডিউ হয়ে যায়৷ নবান্ন সূত্রে খবর, রাজ্যের ন'টি জেলায় এই সংখ্যাটা কয়েক লক্ষ৷ যে জেলাগুলিতে এই প্রবণতা সবথেকে বেশি তার মধ্যে রয়েছে কলকাতা, মালদহ, বীরভূম, কোচবিহার, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, হাওড়া, মুর্শিদাবাদ এবং উত্তর চব্বিশ পরগণায় নির্দিষ্ট সময়ের পরেও দ্বিতীয় ডোজের টিকা না নেওয়া মানুষের সংখ্যা সবথেকে বেশি৷

 এই তালিকায় শীর্ষে রয়েছে কলকাতা৷ সেখানে ওভারডিউ হওয়া ডোজের সংখ্যা ২ লক্ষ ৮২ হাজার৷ অথচ সেখানেই এই মুহূর্তে করোনা পরিস্থিতি সবথেকে খারাপ৷ এর পাশাপাশি মালদহে ওভারডিউ ডোজের সংখ্যা ২ লক্ষ ১৪ হাজার৷ মুর্শিদাবাদে সংখ্যাটা ২ লক্ষ ১০ হাজার৷ অন্যান্য জেলাগুলিতেও সংখ্যাটা ১ লক্ষের বেশি৷  মুখ্যসচিব জেলা প্রশাসনের কর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন,

অবিলম্বে ওভারডিউ হওয়া ভ্যাকসিনের সংখ্যা কমিয়ে ফেলতে হবে৷ প্রসঙ্গত, সোমবারও করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন জেলার জেলাশাসক এবং স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন মুখ্যসচিব৷ গত সাত দিনে যে জেলাগুিলতে সবথেকে বেশি করোনা সংক্রমণের হার সবথেকে বেশি, সেই জায়গাগুলিকে চিহ্নিত করে তালিকাও তৈরি করেছে নবান্ন৷ এই জায়গাগুিলতে আরও বেশি কড়া বিধিনিষেধ জারি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ মাস্ক পরার বিষয়েও কড়া নজরদারি চালাতে বলা হয়েছে৷