বাড়তি সোনা আনার অভিযোগে মুম্বই-এ আটক ক্রুণাল‌ পাণ্ডিয়া

বাড়তি সোনা আনার অভিযোগে মুম্বই-এ আটক ক্রুণাল‌ পাণ্ডিয়া

হিসাব-বহির্ভূত সোনা এবং অন্যান্য দামী সরঞ্জাম থাকার সন্দেহে মুম্বই বিমানবন্দরে আটক ক্রিকেটার ক্রুণাল পান্ডিয়া । বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ের ছত্রপতি শিবাজী মহারাজ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে নামতেই তাঁকে আটকান ডিআরআই আধিকারিকরা ।

সদ্য আইপিএলের পঞ্চম ট্রফি জিতেছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স । স্বভাবতই দুবাইয়ের বুকে রীতিমতো উচ্ছ্বাসে ভেসে গিয়েছিল রোহিত শর্মা বাহিনী । তারপর দুবাইতে একদিন কাটিয়েই বৃহস্পতিবার গোটা মুম্বই ইন্ডিয়ান্স টিমের সঙ্গেই দেশে ফিরছিলেন ক্রুণাল পান্ডিয়া ।

এ য়ারপোর্টে নামতেই তাঁকে আটক করা হয় । আটক করেন শুল্ক দপ্তর বা ডিআরআইয়ের কর্তারা । কারণ , হার্দিকের দাদার কাছে যতটা পরিমাণ সোনাদানা এবং অন্যান্য মূল্যবান সামগ্রী ছিল , তা অনুমতিযোগ্য পরিমাণের চেয়ে বেশি ।

অর্থাত্‍ , যতটা পরিমাণ সোনা এবং অন্যান্য মূল্যবান দ্রব্য ক্রুণালের কাছে থাকার কথা , তার থেকে অনেকটাই বেশি ছিল । এরপরই তাঁকে আলাদা করে জেরা করতে শুরু করেন আধিকারিকরা । কোথা থেকে ওই সোনা এবং সামগ্রী কিনেছেন সে ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হয় ক্রিকেটারকে । তাঁকে সোনাদানার বৈধ কাগজপত্র দেখাতে বলা হচ্ছে।

নিয়ম অনুযায়ী, দুবাই থেকে ভারতে আসার সময় পুরুষ যাত্রীরা সর্বাধিক কুড়ি গ্রাম সোনা নিয়ে আসতে পারেন। তবে তার দাম কখনওই ভারতীয় মুদ্রায় পঞ্চাশ হাজার টাকার বেশি হওয়া উচিত নয়।

মহিলাদের ক্ষেত্রে সোনার পরিমাণ চল্লিশ গ্রাম। যার মূল্য সর্বাধিক হতে পারবে ভারতীয় মুদ্রায় এক লক্ষ টাকা। ক্রুণাল সেই নির্ধারিত পরিমাণের বেশি সোনা নিয়ে দুবাই থেকে মুম্বই এসেছেন বলে খবর।