L অক্ষর দিয়ে শুরু নামের মানুষরা কেমন হয়

L অক্ষর দিয়ে শুরু নামের মানুষরা কেমন হয়

কথায় আছে, নাম দিয়ে যায় চেনা। এটা কিন্তু খুব ভুল কথা নয়। আপনার নামের প্রথম অক্ষর বলে দেবে আপনি কী ধরনের মানুষ। প্রত্যেকের নামেরই একটা বিশেষত্ব আছে, যা থেকে সেই ব্যক্তির চরিত্র সম্পর্কে একটা ধারণা করা যায়। জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, নামের প্রথম অক্ষর অনেক অর্থ বহন করে। নামের প্রথম অক্ষর দিয়ে সেই ব্যক্তি সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারা যায়।

নামের প্রথম অক্ষর দিয়ে আপনি নিজের ভাগ্য যাচাই করতে পারেন। তাই নামের প্রথম অক্ষরের যথেষ্ট গুরুত্ব আছে। দেখে নিন আপনার নামের প্রথম অক্ষর আপনার সম্পর্কে কী বলছে।শুধু 'গোঁফ দিয়ে ' নয়, 'নাম' দিয়েও যায় চেনা! তবে মানুষ চিনতে পুরো নামের দরকার নেই শুধুমাত্র নামের আদ্যাক্ষরই যথেষ্ট । সংখ্যাতত্ত্বের বিচারে এভাবেই চেনা যেতে পারে বহু মানুষকে।

ইংরাজি বর্ণমলার প্রতিটি আদ্যাক্ষরের নামের সঙ্গে সংযুক্ত রয়েছে বেশ কিছু বৈশিষ্ট। আর সেই বৈশষ্ট জানা হয়ে গেলেই, আমাদের আশপাশের বহু রহস্যময় চরিত্রের রহস্য ভেজ করা সম্ভব। ইংরাজি বর্ণ মালার Lঅক্ষরটি সংখ্যাতত্ত্বগত মান ৩ । তাই ৩ সংখ্যার যা যা বৈশিষ্ট রয়েছে তাই বিদ্যমান L নামের আদ্যাক্ষর যুক্ত মানুষদের সঙ্গে।

কেমন মানুষ হন তাঁরা, যাঁদের নামের আগে L থাকে জেনে নিন। L= আপনার ইংরাজি নামের বানানের প্রথম অক্ষর যদি L হয়ে থাকে, তা হলে আপনাকে জানাতেই হচ্ছে যে, আপনি একজন ভীষণভাবে মস্তিষ্ক নির্ভর ব্যক্তি বা কিছুটা অধিক কল্পনাপ্রবণ মনের অধিকারী। আপনার মধ্যে সব সময় কোনও একটা বিষয় নিয়ে অতিরিক্ত চিন্তা করার প্রবণতা কাজ করে। এটা যে কোনও অর্থেই শরীরের পক্ষে খারাপ। দীর্ঘকাল এই প্রক্রিয়া চলতে থাকলে, ভবিষ্যতে সিদ্ধন্তহীনতায় ভুগতে হবে।

অথচ আপনি ভীষণ সৎ, উদার, সহ্যশীল মানসিকতার, দয়াবান হার্দিক চরিত্রের লোক। আপনি ভ্রমণ করতে ভালবাসেন। খুব দুশ্চিন্তার ভিতর দিয়ে চলার ফলে যে ভুলগুলি আপনি করে ফেলেন তার জন্য খুব একটা ভাবার কিছু নেই, সেগুলিকে তেমন নজর দেওয়ারও কিছু নেই। বেশ কিছু বিশেষ গুণ থাকে এঁদেরনামের আগে Lথাকলে তাঁদের মধ্যে কোনও জিনিস সৃষ্টির একটা আকাঙ্খা থাকে।

তাই এই ধরনের মানুষরা সৃষ্টি শীল হন বেশি। কোনও ফেলনা জিনিস থেকে এঁরা নতুন কিছু তৈরি করতে সমর্থ হন। এছাড়াও এঁদের মধ্যে দানশীলবোধ খুবই গাঢ়। কারোর দুঃখ কষ্ট দেখলে এঁরা ঠিক থাকতে পারেন না। দান বা ত্যাগের মধ্য দিয়েই এঁরা সুখ পান। পাশাপাশি যে কোনও পরিস্থিতিতে এঁরা মানিয় চলতে পারেন। 

আর কী কী গুণ রয়েছে এঁদের?এই ধরনের মানুষরা খুবই বন্ধুত্বসুলভ মানুষ হয়। নামের শুরুতে কারোর L থাকলে, সে খুবই বিশ্বাসী বন্ধু হয়। সেই বন্ধু অপরের প্রয়োজনে জান প্রাণ লড়িয়ে দিতে পারেন। খুব মজাদার মানুষ হন এঁরা। হাসি মাজা করে দিন কাটাতে এঁরা ভালোবাসেন। বেশ হালকা মেজাজের মানুষ এঁরা। তাই সবার সঙ্গে সহজে মিশে যেতে পারেন।

প্রেমের বিষয়ে এঁরা কেমন?নামের আদ্যাক্ষর যদি L হয়, তাহলে জানবেন ইতি খুবই প্রেমে খোলামেলা পরিবেশ পছন্দ করেন। এঁদের কোনওভাবে দমবন্ধ করা পরিবেশ পছন্দ নয়। তাই প্রেমের ক্ষেত্রে এঁরা স্পেস পছন্দ করেন। তবে প্রয়োজনীয় স্পেস টুকু দিলে, এঁদের থেকে ভালো প্রেমিক / প্রেমিকা মিলবে না।  

কাজের ক্ষেত্রে কেমন মানুষ হন এঁরা?খোলা মেলা স্বভাবের মানুষ বলে এঁদের সকলেই পছন্দ করেন। তাই কাজের জায়াগায় সবাই এঁদের সঙ্গে বন্দুত্বপূর্ণ আচরণ করেন। তবে অতিরিক্ত হাসি ঠাট্টা করার জন্য কখনও কখনও কারোর বিরাগভাজন হন এঁরা। তবে ভগ্যক্রমে এঁদের ভীষণ দুর্ঘটনা প্রবণতা রয়েছে। তাই সময়ে অসময়ে তাঁরা দুর্ঘটনার কবলে পড়ে যান।